অপপ্রচার ও ষড়যন্ত্রের শিকার হলেন ইলিয়াস কাঞ্চন

সম্প্রতি বিভিন্ন গণমাধ্যমে তাকে নিয়ে প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ জানিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন চিত্রনায়ক ইলিয়াস কাঞ্চন। এ সময় অপপ্রচার ও ষড়যন্ত্রের শিকার হয়েছেন বলেও দাবি করেন তিনি।

রোহিঙ্গা ইস্যুতে বিশ্বমত তৈরিতে সরব হয়েছেন অভিনেতা ইলিয়াস কাঞ্চন। সম্প্রতি এক মানববন্ধনে এ বিষয়ে দেয়া তার বক্তব্য নিয়ে বইছে আলোচনা-সমালোচনার ঝড়। ইলিয়াস কাঞ্চনের অভিযোগ কতিপয় গণমাধ্যম তার যে বক্তব্য প্রকাশ করেছে তা সম্পূর্ণ মিথ্যা। সাম্প্রতিক একাধিক ইস্যুতে অপপ্রচার ও ষড়যন্ত্রের শিকার হয়েছেন বলে দাবি করছেন তিনি।

১৪ সেপ্টেম্বর ইলিয়াস কাঞ্চনের সংগঠন ‘নিরাপদ সড়ক চাই’- এর আয়োজনে রোহিঙ্গাদের উপর নির্যাতন ও গণহত্যা বন্ধে এবং বাংলাদেশে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গাদের দ্রুত ফিরিয়ে নিতে আন্তর্জাতিক মহলের হস্তক্ষেপ কামনা করে এক মানববন্ধন আয়োজিত হয়। মানববন্ধনে নিজের দেয়া বক্তব্যের ভুল উপস্থাপনে বিব্রতকর পরিস্থিতির মুখোমুখি হয়েছেন বলে দাবি করছেন এ চিত্রনায়ক।

১৯৭১ সালে বাংলাদেশের জনগণের ওপর পাক হানাদার বাহিনীর নির্যাতনের সঙ্গে রোহিঙ্গা নির্যাতনকে তুলনা করেছেন ইলিয়াস কাঞ্চন- সম্প্রতি এমন এক সংবাদ প্রকাশ করেছে কিছু অনলাইন গণমাধ্যম। এ ধরণের সংবাদের কারণে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ব্যাপক সমালোচিত হয়েছেন তিনি।

রোববার এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ প্রসঙ্গে ইলিয়াস কাঞ্চন বলেন, “আমার বক্তব্যে আমি স্পষ্টভাবে রোহিঙ্গাদের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছি এবং বিশ্বনেতাদের প্রতি আহবান জানিয়েছি যেন এই বর্বর নির্যাতন বন্ধে দ্রুত কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়। কিন্তু আমি লক্ষ্য করছি কিছু নামধারী অনলাইন নিউজ পোর্টাল আমার সেদিনের দেয়া বক্তব্যকে বিকৃত করে প্রচার করেছে। যা আমার জন্য বিব্রতকর। যে বক্তব্য আমি প্রদান করিনি সে বক্তব্য তারা কোথায় পেল? এভাবে অপপ্রচার চালিয়ে তারা কি ফায়দা লুটছে তা আমার বোধগম্য নয়।”

মুক্তিযুদ্ধের সময় নিজের ভূমিকার কথা স্মরণ করে তিনি আরও বলেন, “আমি নিজে একজন মুক্তিযোদ্ধা। মুক্তিযুদ্ধ আমাদের অহংকার। ৭১-এ যুদ্ধ চলাকালীন সময়ে আমার দেশের বাড়ি কিশোরগঞ্জে পাকিস্তানি হানাদার বাহিনী আক্রমণ করে। সে সময় আমার দুই বোন তাদের ছোঁড়া শেলের আঘাতে পঙ্গুত্ববরণ করেন। আমি মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের সন্তান। মুক্তিযুদ্ধ এবং মুক্তিযোদ্ধাদের নিয়ে আমি এমন বক্তব্য কখনোই দিতে পারিনা যা মুক্তিযুদ্ধ এবং মুক্তিযোদ্ধাদের অসম্মান করে।”

নির্বাচনে অংশ নিতে একটি রাজনৈতিক দলের মনোনয়ন প্রত্যাশা করছেন ইলিয়াস কাঞ্চন- কদিন আগেই এমন সংবাদ প্রকাশিত হয়েছে কিছু  গণমাধ্যমে। ৭ সেপ্টেম্বর এ ঘটনারও তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন ইলিয়াস কাঞ্চন। রোহিঙ্গা ইস্যুতে প্রকাশিত ভুল সংবাদকেও তারই ধারাবাহিকতা বলে দাবি করেন তিনি।