কঙ্গনা রানাওয়াতকে মহেশ ভাটের কাছে কে পাঠিয়েছিল?

কঙ্গনা রানাওয়াতকে নিয়ে এবার মুখ খুললেন আদিত্য পাঞ্চোলি। তাও আবার বলিউডের স্বজনপোষণ নিয়ে। স্পটবয় এর এক সাক্ষাৎকারে আদিত্য বলেন, বলিউডে স্বজনপোষণ হয় বলে কঙ্গনা যেভাবে বার বার দাবি করছেন, তা অহেতুক।

তিনি বলেন, স্বজনপোষণ নিয়ে তার বলার অধিকার নেই। আমি যদি না থাকতাম সেদিন, তাহলে কে ওকে মহেশ ভাটের কাছে পাঠাত?
কঙ্গনা কি কয়েক কিলোমিটার পাড়ি দিয়ে মহেশ ভাটের কাছে যেতে পারতেন বলেও প্রশ্ন তোলেন আদিত্য।
প্রসঙ্গত, কফি উইথ করণে বলিউডে স্বজনপোষণ নিয়ে সরব হন কঙ্গনা রানাওয়াত। আর তারপর থেকেই বলিউড ‘কুইনের’ মন্তব্য নিয়ে জোর জল্পনা শুরু হয়েছে।
আর কঙ্গনার ওই মন্তব্যের বিরুদ্ধে পাল্টা মন্তব্য করলেন আদিত্য।
তিনি বলেন, ‘গ্যাংস্টার মুক্তি পাওয়ার আগ পর্যন্ত কঙ্গনার সঙ্গে তার সম্পর্ক ভাল ছিল। কিন্তু, গ্যাংস্টার মুক্তি পাওয়ার পর থেকে পরিবর্তন হতে শুরু করে কঙ্গনা।’

পাশাপাশি কঙ্গনা যে দাবি করেছেন, তিনি যখন আদিত্যর সঙ্গে সম্পর্কে ছিলেন, তখন জারিনা ওয়াহাবের কাছে গিয়েছিলেন। আদিত্য তার বাবার মত হয়েও কীভাবে কঙ্গনার ওপর ‘অত্যাচার’ করেন, সে বিষয়েও প্রশ্ন তোলেন কঙ্গনা। আর এখানেই চটেছেন আদিত্য।
ভারতের জিনিউজ পত্রিকার খবরে বলা হয়, তিনি বলেন, ‘কঙ্গনার সঙ্গে যখন সম্পর্কে জড়ান, তখন তার ৩৮ বছর। আর এখন তার বয়স ৫৩ বছর।’
তাই কঙ্গনার বাবার বয়সী তিনি কীভাবে হন সে বিষয়েও প্রশ্ন তোলেন আদিত্য।
এসবের পাশাপাশি কঙ্গনার সঙ্গে সম্পর্কে জড়ানোর জন্য স্ত্রী জারিনার কাছে ক্ষমা চেয়েছেন। জারিনা না থাকলে তার পরিবার এভাবে একসঙ্গে থাকত না বলেও মন্তব্য করেন আদিত্য পাঞ্চোলি।