কাজ দেওয়ার প্রলোভন দেখিয়ে যুবতীকে গাড়িতে তুলে নেয় যুবক, অতঃপর…












ঘটনাটি ভারতের পশ্চিম মেদিনীপুরের।  সেখানে কাজ পাইয়ে দেওয়ার নাম করে ওই স্নাতকোত্তরের ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠে  তিনজনের বিরুদ্ধে।  অভিযুক্তরা হলেন সৌমিত্র ঘোষ, সুশোভন দাস ও সঞ্জিত গুপ্তা ।

ঘটনার দিন সৌমিত্র কলকাতার টালার নন্দকিশোর স্ট্রিট এলাকার বাসিন্দা।  পূর্ব মেদিনীপুরের চণ্ডীপুরের বামুনাড়া কসবা এলাকায় বাড়ি সুশোভনের।  অপর অভিযুক্ত সঞ্জিত গুপ্তা গাড়ি চালাচ্ছিল।  সে চন্দ্রকোনা রোডের অপর্ণাপল্লির বাসিন্দা।  বুধবার ধৃতদের গড়বেতা আদালতে তোলা হলে বিচারক পাঁচদিনের পুলিশি হেফাজতের নির্দেশ দেন।  এমন্টাই জানিয়েছে পুলিশ।

এদিন কাজ পাইয়ে দেওয়ার নাম করে ওই স্নাতকোত্তরের ছাত্রীকে তাঁদের সঙ্গে দেখা করতে বলে ওই ২ যুবক।  তরুণী দেখা করতে না চাইলে বাড়ির অদূরে তাঁকে জোর করে ওই যুবকেরা গাড়িতে তুলে নেয়।  এরপরে গনগনির কাছে গাড়িতে তাঁকে ধর্ষণ করা হয়।  তাঁর চিৎকারে আশপাশের লোকেরা জড়ো হয়ে যায়।  সেই সময় গাড়ির দরজা খুলে তাঁকে ফেলে পালানোর চেষ্টা করে অভিযুক্তরা।

যদিও পুরো ঘটনা সাজানো বলে দাবী করেন তিন যুবক।