মোশাররফ করিমের ট্রিট পেয়ে ভালবেসে যা বললেন স্ত্রী জুঁই!

এমন হাস্যজ্জ্বল দম্পতি এখন মিডিয়াতে অনেকেই আছেন। যারা ভালোবেসে বিয়ে করেছেন। করছেন সংসারও। নিজেদের মধ্যে এতটা ভালো বোঝাপড়া রয়েছে সেটা তাদের সঙ্গে কথা বললেই বোঝা যায়। তারা হলেন জনপ্রিয় অভিনেতা মোশাররফ করিম ও রোবেনা রেজা জুঁই।

ভালোবাসা প্রকাশের বিভিন্ন ধরণ রয়েছে। মানব-মানবীর বয়সভেদেও রয়েছে এর বিভিন্ন রং। ভালোবাসার মাধ্যমে যেমন মরুর বুকে জল এনে ফুল ফোটানো সম্ভব, তেমনি এর কারণে নগরী ধ্বংস হওয়ার মতোও ইতিহাস রয়েছে। তারপরও কোনো রকমের হিসাব-নিকাশ ছাড়াই মানুষ ভালোবাসে। প্রেমযমুনায় সাঁতার কেটে ভালোলাগার অমিয় সুধা পান করে। ভালোবাসার এই মোহময় নেশায় আসক্ত হয়েছিলেন মোশাররফ করিম ও রোবেনা রেজা জুঁইও।

কিন্তু মোশাররফ করিম গত ২৯ আগস্ট হঠাৎ করেই পূবাইলে অসুস্থ হয়ে পড়েছিলেন। কিন্তু এখন তিনি সুস্থ। আর তাইতো একটু বেশি হাসেন তিনি। আর সেই হাসি ধরা পড়ল ফেসবুকেও। তার স্ত্রী জুঁই  বেশ কিছু ছবি পোস্ট করেছেন।

সেখানে দেখতে পাওয়া গেল তাদের বেশ কিছু হাসির ছবি। তারা এখন কক্সবাজারে আছেন। ছবিতে দেখা যাচ্ছে তারা সুইমিং পুলে ছবিগুলো তুলেছেন। আর ক্যাপশনে জুঁই লিখেছেন, ‘আমার জামাইটাকে কি ধন্যবাদ বলবো নাকি অনেক ভালোবাসি বলবো বুঝতে পারছি না, আল্লাহ তাকে দীর্ঘজীবী করুন আর সুস্থ রাখুন। আর এভাবে কিছুদিন পর পর আমাকে ট্রিট দেবার ইচ্ছা বহাল রাখুন। আমিন।’

পাঠকের জানিয়ে রাখি, প্রথম দেখাতেই দুজনার দুজনকে ভালো লেগে যায়। এই ভালোলাগা ধীরে ধীরে ভালোবাসায় রূপ লাভ করে। অতঃপর তারা ঘর বেঁধে ভালোবাসাকে সামাজিক স্বীকৃতি দেন। কিভাবে লেখা হয়েছিল তাদের এ প্রেম-প্রণয়ের সুমধুর উপাখ্যান? এ বিষয়ে প্রথমে জুঁইয়ের কাছে জানতে চাইলে লাজুক হেসে বলেন, ‘তা ২০০০ সালের ঘটনা। আমি তখন মালিবাগ চৌধুরীপাড়ার একটি কোচিং সেন্টারে ভর্তি হয়েছিলাম। ওই কোচিং সেন্টারের দায়িত্বে ছিলেন মোশাররফ করিম। কোচিং সেন্টার দেখভালের পাশাপাশি আমাদের ইন্টারমিডিয়েটের বাংলা ও ইংরেজির ক্লাস নিতেন তিনি। এ সময় আমাদের মধ্যে ভালোবাসা বিনিময় হয়।’