যে কারণে ভেঙে যায় অভিষেক-কারিশমার বাগদান!












কারিশমা কাপুর বলিউডের নব্বইয়ের দশকের গ্লামার অভিনেত্রী।আর এই লাস্যময়ীকে বিয়ের জন্য বাগদান অনুষ্ঠানও সেরে ফেলেছিলেন বচ্চন পুত্র অভিষেক। ২০০২ সালে দুই পরিবারের সম্মতিতেই বাগদান হয়েছিল তাদের।

কিন্তু শেষ পর্যন্ত সাত পাকে বাঁধা পড়া হয়ে উঠেনি কারিশমা-অভিষেকের। বাগদানের আংটি পর্যন্ত ফিরিয়ে নেন অভিষেক। ঠিক কী কারণে তাদের বাগদান ভেঙে গিয়েছিল তা নিয়ে এবার খবর প্রকাশ হয়েছে ভারতীয় গণমাধ্যমে।

মূলত, কিছুদিন আগে মুম্বাইয়ের বান্দ্রা-কুরলা কমপ্লেক্সে ২১ কোটি রুপি দিয়ে সাড়ে পাঁচ হাজার স্কয়ার ফুটের একটি নতুন অ্যাপার্টমেন্ট কিনেছেন অভিষেক বচ্চন ও ঐশ্বরিয়া রাই বচ্চন দম্পতি। এরপরই গুঞ্জন শোনা যায়, মা জয়া বচ্চন ও বাবা অমিতাভ বচ্চনের ‘জলসা’ (বাড়ির নাম) ছেড়ে স্ত্রী (ঐশ্বরিয়া রাই বচ্চন) ও মেয়েকে (আরাধ্য বচ্চন) নিয়ে নতুন অ্যাপার্টমেন্টে থাকবেন অভিষেক বচ্চন।

তবে সেটিকে মিথ্যা বলে বচ্চন পরিবারের এক ঘনিষ্ঠসূত্র গণমাধ্যমকর্মীদের জানান, মা-বাবাকে ছেড়ে আলাদা থাকার কথা কখনও চিন্তাও করেন না অভিষেক। যা ঐশ্বরিয়া খুব ভালোভাবেই বোঝেন। কারণ পরিবারের মর্ম খুব ভালো করেই জানেন অ্যাশ। তারা অ্যাপার্টমেন্টটি কিনেছেন ঠিকই তবে স্থায়ীভাবে বসবাসের জন্য নয়।

এ ঘটনার পরই গুঞ্জন উঠেছে, অমিতাভ-জয়ার জন্যই প্রেমিকা কারিশমা কাপুরের সঙ্গে ছাড়াছাড়িতে যান অভিষেক।বিয়ের পর মা-বাবাকে ছেড়ে আলাদা থাকতে হবে এমন শর্ত দিয়েছিলেন লোলো (কারিশমার ডাকনাম)। এ কারণে তার কাছ থেকে আংটি ফিরিয়ে নেন জুনিয়র বচ্চন।