রণবীরের কাঁধে মাথা রাখতে গিয়ে লজ্জা পেয়েছেন আলিয়া! কেন জানেন













ক্যাটরিনা কাইফ, মাহিরা খানের পর এবার আলিয়া ভাটের সঙ্গে রণবীরের প্রেমের খবরে সরগরম বি-টাউন। সেখানকার অনেকের মুখেই শোনা যাচ্ছে এখন নাকি বেশিরভাগ সময় রণবীরের সঙ্গেই কাটাচ্ছেন আলিয়া। দুজনে নাকি সিরিয়াস রিলেশনে রয়েছে, একসঙ্গে ডিনারে যাচ্ছেন, ঘুরছে ফিরছেন। অনেক জায়গাতেই নাকি তাঁদেরকে একসঙ্গে গাড়ি থেকে নামতে 

দেখা গেছে।

তবে এটা কি জানেন, একসময় রণবীরের সঙ্গে প্রথম আলাপে ভীষণই লজ্জা পেয়েছিলেন মহেশ ভাট কন্যা। রণবীরের কাঁধে মাথা রাখতে গিয়ে নাকি লজ্জায় লাল হয়ে গিয়েছিলেন। একটি শোতেএসে নিজের মুখেই সেই স্মৃতিচারণা করেছেন আলিয়া ভাট। আলিয়া বলেন, '' আমি যখন রণবীরের সঙ্গে প্রথমবার দেখা করি তখন আমার বয়স মাত্র ১১। আর রণবীর তখন সঞ্জয়লীলা বনশালির সহকারী পরিচালক হিসাবে কাজ করছেন। একটা ফটোশ্যুট করার ছিল রণবীরের সঙ্গে, আর সেখানে ওর কাঁধে মাথা রাখতে হয়েছিল। তো আমি ভীষণই লজ্জা পেয়েছিলাম।'' আলিয়া আরও বলেন যে রণবীর কাপুর বরাবরই তাঁর পাশে থেকেছেন। 'হাইওয়ে' ছবিটি দেখে রণবীর তাঁকে ফোন করে প্রশংসাও করেছিল বলে জানান মহেশ ভাট কন্যা। আলিয়ার কথায় তিনি চিরকালই রণবীরের প্রতি অনুগত।

প্রসঙ্গত, এই মুহূর্তে রণবীরের সঙ্গে 'ব্রহ্মাস্ত্র' ছবিতে কাজ করছেন আলিয়া ভাট। আর এটাই তাঁদের দুজনের প্রথম ছবি। এ প্রসঙ্গেও কিছুদিন আগে আলিয়া জানিয়েছিলেন, ''আমি চিরকালই রণবীরের সঙ্গে কাজ করতে চেয়েছিলাম। এই দিনটির জন্য অপেক্ষা করছিলাম। অবশেষে সেই দিনটা এসেছে। ঠিক যেমনটা ভেবেছিলাম তেমনই, রণবীর পুরোপুরি ওর চরিত্রের মধ্যে ঢুকে যায়। আমি যখন ওর সঙ্গে কাজ করছি, বুঝতে পারছি যে আমি যেমনটা ভেবেছিলাম ঠিক তেমনই। ও শুধু অসাধারণ অভিনেতাই নয়, একজন ভীষণ ভালো মানুষ।''