শুক্রবার আসছে ককপিট, যেসব হলে দেখা যাবে












সাফটা চুক্তির আওতায় শুক্রবার বাংলাদেশের ৮২টি হলে মুক্তি পাচ্ছে ভারতীয় ছবি ‘ককপিট’। সিনেমাটির গুরুত্বপূর্ণ দুটি চরিত্রে অভিনয় করেছেন বাংলাদেশের রোশান ও নাদের চৌধুরী।

২২ সেপ্টেম্বর কলকাতায় মুক্তি পায় ‘ককপিট’। অভিনয়ের পাশাপাশি প্রযোজনাও করেছেন দেব। তার বিপরীতে আছেন কোয়েল মল্লিক ও রুক্মিণী মৈত্র। বিশেষ চরিত্রে আছেন প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়। পরিচালনা করেছেন কমলেশ্বর মুখার্জি।

বাংলাদেশে পরিবেশনায় আছে জাজ মাল্টিমিডিয়া।

ককপিটে হল লিস্ট নিচে দেওয়া হল—

ঢাকার ভেতরে : ব্লকবাস্টার সিনেমাস, বলাকা, শ্যামলী, মধুমিতা, সনি, চিত্রামহল, মুক্তি, সেনা, গীত, ফ্যান্টাসি ও পদ্মা।
ঢাকার বাইরে : রানীমহল (ডেমরা), চাঁদমহল (কাঁচপুর), নিউ মেট্রো (নারায়ণগঞ্জ), বর্ষা (জয়দেবপুর), সেনা (সাভার), নন্দিতা (সিলেট), উপহার (রাজশাহী), ছায়াবানী (ময়মনসিংহ), শাপলা (রংপুর), মডার্ন (দিনাজপুর), রূপকথা (পাবনা), অভিরুচি (বরিশাল), শঙ্খ (খুলনা), চিত্রালী (খুলনা), দিনার (চট্টগ্রাম), ঝংকার (পাঁচদোনা), পান্না (মুক্তারপুর), কাকলী (শেরপুর), মনোয়ার (জামালপুর), মানসী (কিশোরগঞ্জ), হীরামন (নেত্রকোনা), কেয়া (টাঙ্গাইল), হ্যাপী (লক্ষ্মীপুর), নবীন (মানিকগঞ্জ), পূর্বাশা (সান্তাহার), তিতাস (পটুয়াখালী), চিত্রবানী (গোপালগঞ্জ), তুলি (নাভারন), প্রিয়া (ঝিনাইদহ), গৌরি (শাহজাদপুর), হীরক (গোবিন্দগঞ্জ), নিউ রজনীগন্ধা (চালা), কল্লোল (মধুপুর), রাজিয়া (নাগরপুর), অন্তরা (মেলান্দহ), বর্ণালী (নোয়াপাড়া), ছন্দা (পটিয়া), ঝর্না (দাউদকান্দি), সিক্তা (ধুনট), রাজ (কুলিয়ারচর), দুলাল (ফেনী), ফিরোজমহল (পাগলা), মিলন (মাদারীপুর), মধুমিতা (মাগুরা), মনিকা (সায়েস্তাগঞ্জ), মেহেরপুর (মেহেরপুর), রুনা (চালাকচর), সাগর (কালিয়াকৈর), আলতা (সরিষাবাড়ি), মায়াবী (আখাউড়া), মমতাজ (সিরাজগঞ্জ), সোনিয়া (বগুড়া), মুন (হোমনা), সাধনা (রাজবাড়ী), আলমডাঙ্গা (আলমডাঙ্গা), অনামিকা (পিরোজপুর), আনন্দ (তানোর), আয়না (আক্কেলপুর), বাবু টকিজ (কিশোরগঞ্জ), ছন্দা (কালীগঞ্জ), দিনান্ত (কেশরহাট), জনতা (জলঢাকা), লাইট হাউজ (পারুলিয়া), মমতাজ মহল (নীলফামারী), নসীব (সাপাহার), রাজু (ঈশ্বরদী), রংধনু (নজিপুর), সোনালী (ঘোড়াঘাট), সনি (ইসলামপুর), উল্লাস (বীরগঞ্জ) ও গ্যারিসন (দয়ারামপুর ক্যান্ট)।