শুটিং শেষে ইমোশনাল হয়ে পড়লেন ক্যাটরিনা!

প্রেম বিচ্ছেদ আর তারপর পুনরায় এক হয়ে যাওয়ার গল্প বলিউডের আনাচে-কানাচে। ব্যক্তিগত জীবনে দুরত্ব তৈরি হয়ে গেলেও কাজের ক্ষেত্রে দুরত্বকে সরিয়ে রেখে পর্দায় একসঙ্গে ফেরার গল্প বেশ কয়েকটা রয়েছে বলিউডে। এবার সেই তালিকায় যুক্ত হলেন- সালমান ও ক্যাটরিনা। বিগত পঞ্চাশ দিন ধরে আবুধাবিতে তাঁরা শুট করছিলেন একসঙ্গে। তাঁদের জুটির অন্যতম জনপ্রিয় ছবি ‘এক থা টাইগার’-এর সিক্যুয়েল ‘টাইগার জিন্দা হ্যায়’র সেই দীর্ঘ শুটিং পর্ব শেষ হল বৃহস্পতিবার। শুটিংয়ের শেষ দিনে সেটে ইমোশনাল হয়ে পড়লেন ক্যাটরিনা কাইফ। চোখে পানি অভিনেত্রীর।

বেশ কয়েকদিন ধরেই এই ছবির শুটিং ছিল খবরের শিরোনামে। কারণ বিচ্ছেদের পর এই প্রথম এতদিন ধরে একসঙ্গে আউটডোর শুটিংয়ে সালমান-ক্যাটরিনা। সেটে একে অপরের সঙ্গে অনেকটা সময়ই কাটিয়েছেন তাঁরা। পরিচালক আলি আব্বাস জাফর বিভিন্ন সময়ে পোস্ট করেন সালমান ক্যাটরিনার অনেক ছবি।
তাঁদের সেইসব ছবি ভাইরাল হয়ে পড়েছিল ইন্টারনেটে।

জানা গেছে, তার জেরেই নাকি সালমান ও লুলিয়া ভান্তুরের মধ্যে তৈরি হয়েছে দুরত্ব। বলিউডে এখন একটাই গুঞ্জন তাহলে কি এই ছবির হাত ধরে আবারও কাছাকাছি এলেন সালমান-ক্যাট! শুটিং শেষে ক্যাটরিনার চোখ পানি কি শুধু শুটিং শেষ হয়ে যাওয়ার দুঃখে নাকি সালমানের থেকে আবারও দূরে যাওয়ার কষ্টে! তবে শুধু ক্যাটরিনাই নয়, শুটিং শেষে ইমোশনাল হয়ে পড়লেন পরিচালক আলি আব্বাস জাফরও।

সেই ভিডিও নিজের ইনস্টাগ্রাম প্রোফাইলে আপলোড করেন ক্যাট। যেখানে পরিচালক জানান, ক্যাটরিনাকে নাকি প্রযোজক আদিত্য চোপড়া একটি হেলিকপ্টার উপহার দিয়েছেন।

৫০ দিন তো আর মুখের কথা নয়, এতদিন সালমান খানের মতো একজন হাই প্রোফাইল অভিনেতাসহ গোটা টিমকে নিরাপত্তা দেওয়ার জন্য ও শুটিংয়ে নানা সাহায্য করার জন্য আবুধাবী সরকারকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন আলি।

অন্যদিকে তাঁর চোখে পানি দেখা না গেলেও তিনি যে ক্যাটরিনার সঙ্গে দারুণ সময় কাটিয়েছেন তা বোঝা গেল সালমান খানের টুইট থেকেই।

আপাতত শেষ শুটিং। বাকি এখনো পোস্ট প্রোডাকশনের অনেক কাজ। অ্যাকশন ও রোম্যান্সে ভরপুর এই ছবি নিয়ে ক্রিসমাসে বড়পর্দায় ফিরছে সালমান-ক্যাটরিনা জুটি।