তারেক মাসুদের পরিবারকে ৪ কোটি ৬১ লাখ টাকা ক্ষতিপূরণ দেয়ার নির্দেশ হাইকোর্টর

মানিকগঞ্জে সড়ক দুর্ঘটনায় চলচ্চিত্রকার তারেক মাসুদের মর্মান্তিক মৃত্যুর ঘটনায় তার পরিবারকে ৪ কোটি ৬১ লাখ টাকা ক্ষতিপূরণ দিতে নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট।

রোববার বিকেলে বিচারপতি জিনাত আরা ও বিচারপতি কাজী মো. ইজারুল হক আকন্দের হাইকোর্ট বেঞ্চ এ রায় ঘোষণা করেন।

বিস্তারিত আসছে…

মিলার মামলায় শশুর বাড়ির লোকদের বিরুদ্ধে সমন

কণ্ঠশিল্পী মিলা ইসলামের করা মানহানির মামলায় তার শাশুড়ি আফরোজা নাসিরসহ তিন জনকে আদালতে হাজির হতে সমন জারি হয়েছে। মঙ্গলবার দুপুরে ঢাকা মহানগর হাকিম সরাফুজ্জামান আনছারী এই আদেশ দেন।

এর আগে সকালে মিলা মামলাটি করলে বিচারক জবানবন্দি গ্রহণ করে নথি পর্যালোচনায় পরে আদেশ দিবেন বলে জানিয়েছেন।

সমন জারি হওয়া মামলার অপর দুই আসামি হলেন, মিলার দেবর এসএম রহমান ও দেবরের বউ আফরোজা রহমান লাভনী।

মামলায় বলা হয়, আসামিরা পরস্পর যোগসাজসে গত ৭, ৯ ও ১০ অক্টোবর bd24live অনলাইনে বাদিনীকে নিয়ে বিভিন্ন মানহানিকার সংবাদ প্রকাশ করেছেন। যাতে তার সুনাম ক্ষুণ্ন হয়।

উল্লেখ্য, এর আগে মিলা গত ৫ অক্টোবর রাজধানীর উত্তরা পশ্চিম থানায় মারধর ও যৌতুকের অভিযোগে স্বামী পারভেজ সানজারির বিরুদ্ধে একটি মামলা করেছিলেন। মামলার পরই সানজারিকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। বর্তমানে ওই মামলায় তিনি কারাগারে আছেন।

স্বামীর বিরুদ্ধে মিলার করা মামলায় বলা হয়, বিয়ের পর কয়েকবার মিলাকে মারধর করে তার স্বামী। সর্বশেষ গত ৩ অক্টোবর তাকে মারধর করা হয়। এর আগে তার স্বামী পাঁচ লাখ টাকা যৌতুক নিয়েছিলেন। পরে আরও দশ লাখ টাকা দাবি করেন। টাকা না পেয়ে তার স্বামী মিলাকে মারধর করেছেন।

একটি বেসরকারি এয়ারলাইন্সের পাইলট পারভেজ সানজারির সঙ্গে দীর্ঘদিন সম্পর্ক করার পর ১২ মে তারা বিয়ে করেন।

রাজধানীতে আবার ও বাসায় ডেকে নিয়ে অভিনেত্রীকে ধর্ষণ

রাজধানীর কদমতলী থানা এলাকায় অভিনেত্রী ও উপস্থাপিকা তরুণীকে (২৩) বাসায় ডেকে নিয়ে ধর্ষণ করার অভিযোগে এক অভিনেতার বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে। বুধবার রাতে ওই তরুণী কদমতলী থানায় গিয়ে এ মামলা করেন। মামলা নম্বর ৪২। অভিযুক্তকে গ্রেফতারে পুলিশ অভিযান চালাচ্ছে।

এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন কদমতলী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) কাজী ওয়াজেদ আলী। ধর্ষণের অভিযোগ এনে মামলা দায়েরকারী তরুণীর বরাত দিয়ে ওসি জানান, তরুণীর দাবি ২ আগস্ট তিনি ধর্ষণের শিকার হন। ওই তরুণী একটি পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রী। বেশ কিছুদিন ধরে তিনি মডেল ও উপস্থাপনার সঙ্গে সম্পৃক্ত। পাশাপাশি কয়েকটি নাটকেও অভিনয় করেছেন। অভিনয়, মডেলিং ইত্যাদি সূত্রে উঠতি আরেক অভিনেতা ও মডেলের সঙ্গে তার পরিচয় হয়। পুলিশ অভিযুক্ত তরুণ মডেলের নাম প্রকাশ করতে রাজি হয়নি।

মামলায় উল্লেখ করা হয়, ২ আগস্ট ওই তরুণী মডেলকে কদমতলী থানাধীন শনিরআখড়া এলাকায় তরুণ মডেলের বাসায় নিয়ে যান। সেখানে এক পর্যায়ে তাকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করা হয়েছে এমন অভিযোগ তরুণীর।

ওসি জানান, যাকে ধর্ষণের অভিযোগে আসামি করা হয়েছে, তাকে গ্রেফতারের জন্য পুলিশ অভিযান চালাচ্ছে। স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য ওই তরুণীকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

এসএ টিভির চেয়ারম্যানসহ ছয়জনের বিরুদ্ধে আদালতের গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি

বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেল এসএ টিভির চেয়ারম্যান ও ব্যবস্থাপনা পরিচালকসহ (এমডি) ছয়জনের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেছেন যশোরের একটি আদালত।

বৃহস্পতিবার (২০জুলাই) দুপুরে এক‌টি মানহানী মামলার শুনানি শেষে সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট সদর আমলি আদালতের বিচারক হুমায়ুন কবির গ্রেফতারি পরোয়ানা জারির আদেশ দেন। এসএ টিভির যশোরের সাবেক প্রতিনিধি অনুব্রত সাহা মিঠুনের দায়েরকৃত মামলায় এই প‌রোয়ানা জা‌রি করা হয়।

মামলার আসামিরা হলেন, এসএ টিভির চেয়ারম্যান ফরিদা পারভীন, এমডি সালাহ উদ্দীন আহম্মেদ, ডিএমডি সেলিনা আক্তার, পরিচালক নূরে আলম রুবেল, শিরিন আক্তার ও সামছুর আলম।

বাদির আইনজীবী দেবাশীষ দাস বিষয়টি নিশ্চিত করে  জানান, অনুব্রত সাহা মিঠুন গত বছরের ১৯ ডিসেম্বর রেজিস্ট্রি চিঠির মাধ্যমে এসএ টিভি থেকে যথাযথ উপায়ে অব্যাহতি নেন। এরপর ফিরিয়ে দেন পরিচয়পত্র, লোগোসহ যাবতীয় মালামাল।
এরপর গত ২৩ ডিসেম্বর এসএ টিভি কর্তৃপক্ষ একটি পত্রিকায় বিজ্ঞাপন দিয়ে তার বিরুদ্ধে মানহানিকর তথ্য প্রকাশ করে।

এ ঘটনায় অনুব্রত সাহা মিঠুন বাদি হয়ে ২৬ ডিসেম্বর যশোর সিনিয়র জুডিসিয়াল আমলি সদর আদালতে একটি মানহানি মামলা করেন।

অভিনেতা তানভীর তনুকে কারাগারে প্রেরণ

এক তরুণীকে ধর্ষণের অভিযোগে দায়ের করা মামলায় অভিনেতা তানভীর তনুকে কারাগারে পাঠিয়েছেন আদালত।

শনিবার ঢাকা মহানগর হাকিম সারাফুজ্জামান আনছারী এ আদেশ দেন।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা রূপনগর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মোকাম্মেল হোসেন তানভীর তনুকে আদালতে হাজির করে মামলার সুষ্ঠু তদন্ত, প্রকৃত রহস্য উদঘাটন এবং ঘটনার সঙ্গে আর কেউ জড়িত কি না তা জিজ্ঞাসাবাদের জন্য পাঁচ দিনের রিমান্ড আবেদন করেন। অপরদিকে তানভীর তনুর পক্ষে জামিনের আবেদন করেন তার আইনজীবী।

উভয় পক্ষের শুনানি শেষে আদালত জামিন নাকচ করে তাকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।

এর আগে শুক্রবার সন্ধ্যায় ধর্ষণের অভিযোগে তানভীর তনুকে রাজধানীর রূপনগর ইস্টার্ন হাউজিং এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করা হয়।

পুলিশ জানায়, ওই তরুণী একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে কাজ করেন। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তানভীর তনুর সঙ্গে তার পরিচয় হয় ও ঘনিষ্ঠতা বাড়ে। সম্প্রতি তাদের মালয়েশিয়ায় বেড়াতে যাওয়ার কথা ছিল।

তানভীর তনু বিবাহিত। তবে তার কোনো সন্তান নেই।

অভিযোগকারীর বরাত দিয়ে মোকাম্মেল হোসেন বলেন, ‘বিদেশে বেড়াতে যাওয়ার কথা বলে গত ৭ এপ্রিল তানভীর তনু রূপনগরের বাসায় ওই তরুণীকে ডেকে নিয়ে যান। সেদিন তার স্ত্রী বাসায় ছিলেন না। এই সুযোগে তানভীর তনু ওই তরুণীকে ধর্ষণ করেন। এ সময় তানভীর তনুর আরেক বন্ধু সেখানে উপস্থিত ছিলেন। প্রথমে তনু ওই তরুণীকে ধর্ষণ করেন। পরে তিনি তার বন্ধুকেও ধর্ষণ করার জন্য বলেন। এ সময় ভুক্তভোগী ওই তরুণী বাসা থেকে পালিয়ে আসেন।

দীর্ঘদিন পর মামলা প্রসঙ্গে তদন্ত কর্মকর্তা জানান, ঘটনার পর তানভীর তনুর অবস্থান নিশ্চিত হতে পারছিলেন না ভুক্তভোগী ওই তরুণী। এজন্য তিনি থানায় অভিযোগ করতে আসেননি। কারণ, তিনি নিরাপত্তহীনতায় ভুগছিলেন। শুক্রবার তানভীর তনু বাসায় আছেন, এটা নিশ্চিত হয়ে তিনি থানায় এসে বিষয়টি জানান। এর পর তানভীর তনুর বাসায় অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

The post অভিনেতা তানভীর তনুকে কারাগারে প্রেরণ appeared first on ZoomBangla News.

ইউটিউব থেকে রেকর্ড ডিসলাইক পাওয়া ‘আল্লাহ মেহেরবান’ সরাতে লিগ্যাল নোটিশ

যৌথ প্রযোজনার ‘বস ২’ ছবিতে জিৎ ও নুসরাত ফারিয়ার অংশগ্রহণে গাওয়া আইটেম সং ‘আল্লাহ মেহেরবান’ ইউটিউব থেকে সরিয়ে নেয়ার দাবিতে লিগ্যাল নোটিশ পাঠিয়েছেন এক আইনজীবী।

আগামী তিনদিনের মধ্যে গানটি ইউটিউব থেকে সরিয়ে নিতে সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী আজিজুল বাশারের পক্ষে সাতজনকে এ লিগ্যাল নোটিশ পাঠান আইনজীবী অ্যাডভোকেট হোজ্জাতুল ইসলাম।

লিগ্যাল নোটিশের সাত প্রাপক হলেন, জাজ মাল্টিমিডিয়া, চলচ্চিত্র সেন্সর বোর্ডের চেয়ারম্যান, পুলিশের মহাপরিদর্শক, বাংলাদেশ চলচ্চিত্র উন্নয়ন করপোরেশনের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও সভাপতি, সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়ের সচিব ও তথ্য মন্ত্রণালয়ের সচিব।

অ্যাডভোকেট হোজ্জাতুল ইসলাম এ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, গানটিতে মুসলিমদের ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত দেওয়া হয়েছে ও আল্লাহর নাম ব্যবহার করে অশ্লীলভাবে উপস্থাপন করা হয়েছে।

২০১৩ সালে জিতের সুপারহিট ছবি ‘বস’ এর সিকুয়ালে নির্মিত হয়েছে ‘বস-২’। এই ছবিকে যৌথ প্রযোজনার ছবি বলা হলেও ‘বস-২’ ছবির পরিচালক একজনই, তিনি বাবা যাদব। নেই তারকা, টেকনিশিয়ান ও শুটিং স্পটের ভারসাম্যও।

এত সমালোচনা, অনিয়ম ও প্রতারণার পরও এই ছবি কেমন করে বাংলাদেশের সেন্সর বোর্ডে মুক্তির ছাড়পত্র পাবে, সেটাই দেখার বিষয়।

পরকীয়া প্রসঙ্গে একি বললেন নাগরী

রাজধানীর এলিফ্যান্ট রোডের ফ্ল্যাটে ব্যবসায়ী নূরুল ইসলাম হত্যা মামলায় গ্রেপ্তার কবি ও গীতিকার এবং সাবেক কাস্টমস কর্মকর্তা শাহাবুদ্দীন নাগরীকে রিমান্ডে নিয়ে ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদ করছে পুলিশ। গতকাল বৃহস্পতিবার রিমান্ডের তৃতীয় দিন পেরিয়েছে। জিজ্ঞাসাবাদের সময় নাগরী জানিয়েছেন, এই বয়সে পরনারীর সঙ্গে তাঁর সম্পর্ক গড়ে তোলা ঠিক হয়নি। তিনি অনুতপ্ত। এই মামলার প্রধান আসামি নুরানী আক্তার সুমী জিজ্ঞাসাবাদের সময় অনেক গুরুত্বপূর্ণ তথ্য দিচ্ছেন বলে জানা গেছে।

স্বামীর সম্মতিতে তিনি নাগরীর সঙ্গে সম্পর্ক গড়ার পর কী কারণে তাঁকে হত্যা করা হয়েছে সে বিষয়ে তথ্য দিচ্ছেন পুলিশকে। তবে পুলিশ মামলা তদন্তের স্বার্থে সেটি প্রকাশ করতে চাইছে না। এ বিষয়ে জানতে চাইলে নিউ মার্কেট থানার ওসি আতিকুর রহমান বলেন, ‘আমরা জিজ্ঞাসাবাদ অব্যাহত রেখেছি। তদন্তের স্বার্থে এর বেশি কিছু বলা যাবে না। ’

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, নাগরীকে গ্রেপ্তার করার সময় তিনি বিস্মিত হয়ে যান। যেন আকাশ থেকে পড়েন। রবিবার ভোর ৫টার দিকে পুলিশ নিকুঞ্জে তাঁর বাসায় অভিযান চালায়। পুলিশের সামনে গিয়ে তিনি জানতে চান তাঁকে পুলিশ কেন খুঁজছে। তাঁকে জানানো হয়, তিনি হত্যা মামলার আসামি। শুনে যেন আকাশ থেকে পড়েন নাগরী। তিনি জানতে চান, কিসের হত্যা? কে কাকে হত্যা করেছে? ঠিক তখন পুলিশ নূরুল ইসলামের বোনের দায়ের করা হত্যা মামলার কপিটি দেখান তাঁকে। এ সময় নাগরী সেটিকে মিথ্যা, বানোয়াট বলে পুলিশকে এক ধরনের ধমক দিতে থাকেন। তখন পুলিশ বলে, থানায় চলুন। সেখানে গিয়ে বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করা যাবে। পরে তাঁকে থানায় নিয়ে যায় পুলিশ।

একটি সূত্র জানায়, থানায় নিয়ে যাওয়ার পরও নাগরী বলতে থাকেন, ঘটনাটির সঙ্গে তাঁর কোনো সম্পৃক্ততা নেই। তিনি ওই বাড়িতে কোনো দিন যাননি। নূরুল ইসলাম বা সুমী নামের কাউকে চেনেনও না। পরে যখন পুলিশ কিভাবে তাঁর সঙ্গে সুমীর পরিচয়, প্রতিদিন কয়টার সময় তিনি ডম-ইনো ভবনে সুমীর সঙ্গে সাক্ষাৎ করতে যেতেন এবং কয়টার সময় বেরোতেন, ক্লোজড সার্কিট ক্যামেরার ছবির কথা নির্দিষ্ট করে বলতে শুরু করে, তখন তিনি নরম হতে শুরু করেন। একপর্যায়ে তিনি স্বীকার করেন সুমীর সঙ্গে তাঁর পরিচয় ও পরকীয়া প্রেমের কথা। বাড়িভাড়া থেকে শুরু করে সব খরচ চালানোর বিষয়টিও সত্য বলে মেনে নেন তিনি। এরপর ব্যক্তিজীবনের অনেক কথাই জানান পুলিশকে।

তিনি পুলিশকে বলেন, ‘এই বয়সে এসব (পরকীয়া) করা ঠিক হয়নি। আমার নিজের সঙ্গে পরিবারেরও বড় ক্ষতি হলো। ’ তবে তিনি হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত নন বলে দাবি করছেন।

উল্লেখ্য, গত ১৩ এপ্রিল এলিফ্যান্ট রোডের ১৭০/১৭১ নম্বর ডম-ইনো ভবনের একটি ফ্ল্যাটে রহস্যজনক মৃত্যু হয় নূরুল ইসলাম নামের এক ব্যবসায়ীর। পরে পুলিশ লাশ উদ্ধার করতে গিয়ে বুঝতে পারে তাঁকে হত্যা করা হয়েছে। এ সময় নূরুল ইসলামের স্ত্রী সুমী ও সুমীর গাড়িচালককে আটক করে পুলিশ। তদন্তে নেমে পুলিশ জানতে পারে এটি একটি হত্যাকাণ্ড। ওই দিন ওই ফ্ল্যাটে ছিলেন কবি শাহাবুদ্দীন নাগরী। পরে তাঁকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। তাঁদের রিমান্ডে জিজ্ঞাসাবাদ করছে নিউ মার্কেট থানার পুলিশ।

ভিডিওঃ শাকিবের জন্য নিজের সন্তানকে অস্বীকার করলেন বুবলি ?