ভেঙে গেল শাকিব-অপুর সংসার

তারকা দম্পতি শাকিব-অপুর গোপন বিয়ের খবর জানাজানি হয় চলতি বছর ১০ এপ্রিল। এরপর থেকে চলচ্চিত্র পাড়ায় গুঞ্জন ছিল শাকিব-অপুর সংসার নাকি টিকবে না! সেই গুঞ্জন সত্যি হচ্ছে। অবশেষে ভেঙে যাচ্ছে শাকিব-অপুর সংসার।

শাকিবের পক্ষ থেকে অপুকে ডিভোর্সের চিঠিও দেয়া হয়েছে। খোঁজ নিয়ে জানা গেছে অপু এখনও ডিভোর্স লেটার রিসিভ করেননি।

শাকিব খানের একটি ঘনিষ্ঠ সূত্র সংবাদ মাধ্যমকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

শাকিব-অপু গোপনে বিয়ে করেন ২০০৮ সালের ১৮ এপ্রিল। বিয়ের ৮ বছরের মাথায় তাদের কোল জুড়ে আসে এক পুত্রসন্তান। তার নাম আব্রাহাম খান জয়। ২০১৬ সালের ২৭ সেপ্টেম্বর কলকাতার একটি ক্লিনিকে সিজারের মাধ্যমে জয়ের জন্ম হয়।

আরও খবর : ভক্তদের সাথে খারাপ আচরণ করলেন জেনিফার লরেন্স

অপুর কাছে ডিভোর্সের চিঠি পাঠানোর বিষয়টি ভারতের হায়দ্রাবাদ থেকে শাকিব খান সংবাদ মাধ্যমকে স্ত্রী অপুকে ডিভোর্সের খবরটি নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, ৩০ নভেম্বর হায়দ্রাবাদ যাওয়ার আগে ডিভোর্স পেপারে স্বাক্ষর করেছি।’

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, এ ডিভোর্সের আইনজীবী ছিলেন রোকন উদ্দিন মাহমুদ।

অপরদিকে চিত্র নায়িকা অপু বিশ্বাস সংবাদ মাধ্যমকে জানিয়েছেন, ‘গণমাধ্যমের খবরে জেনেছি শাকিব আমাকে ডিভোর্স লেটার পাঠিয়েছে। কিন্তু আমি তা হাতে পাইনি। কারণ আমি বাসায় ছিলাম না।’

শাকিব তার পক্ষ থেকে ডিভোর্স দিয়েছেন এমনটা জানা গেছে। এ ব্যাপারে জানতে চাইলে জাগো নিউজকে এসব কথা বলেন অপু বিশ্বাস।

তিনি বলেন, বাসায় গেলে বলতে পারব চিঠি এসেছে কি-না। চিঠি পেলে কী ব্যবস্থা নেবেন- জানতে চাইলে অপু বলেন, কী আর ব্যবস্থা নেব। সে যদি এমন সিদ্ধান্ত নিয়ে থাকে আমার আর কিছু করার থাকবে না। আমার পরিবারের লোকদের সঙ্গে বসে আলাপ করে সিদ্ধান্ত নেব। এমন কিছু হলে আমাদের দু’জনেরই ইমেজ নষ্ট হবে। আমাদের একমাত্র ছেলের জীবনটাও একটা ধাক্কার মধ্যে পড়বে। দেখা যাক কী হয়।

শাকিব-অপুর গোপনে বিয়ে করেন ২০০৮ সালের ১৮ এপ্রিল। বিয়ের ৮ বছরের মাথায় তাদের কোল জুড়ে আসে এক পুত্রসন্তান। তার নাম আব্রাহাম খান জয়। ২০১৬ সালের ২৭ সেপ্টেম্বর কলকাতার একটি ক্লিনিকে সিজারের মাধ্যমে জয়ের জন্ম হয়।

শাকিব খান বর্তমানে নোলক ছবির শুটিং এ হায়দ্রাবাদে আছেন। এর বেশি তিনি কোনো মন্তব্য করতে রাজি হয়নি।

এসএইচ-১০/০৪/১২ (বিনোদন ডেস্ক, তথ্যসূত্র : জাগোনিউজ)

ভক্তদের সাথে খারাপ আচরণ করলেন জেনিফার লরেন্স

‘মাদার’ ছবির তারকা জেনিফার লরেন্সকে তাঁর পরিচিতজনেরা মিষ্টি মেয়ে হিসেবেই জানেন। কিন্তু এই নায়িকা আবার ভক্তদের সামনে গেলে অন্য মানুষ হয়ে যান।

অস্কারজয়ী এই অভিনেত্রী ভক্তদের ভিড় থেকে নিজেকে সব সময় বাঁচিয়ে রাখতে চান। আর জনবহুল কোনো জায়গায় গেলে তিনি চোখ-মুখ কুঁচকে এমন করে থাকেন, যেন কোনো মানুষ ভয়ে তাঁর কাছে আসার সাহস না পান। আর এ কাজ তিনি করেন আত্মরক্ষার জন্য। সম্প্রতি তা জানিয়েছেন এক সাক্ষাৎকারে।

‘কোনো জনবহুল জায়গায় প্রবেশ করার সঙ্গে সঙ্গে আমি আমার ভোল পালটে ফেলি। আমি তখন অসম্ভব রুক্ষ আচরণ করতে থাকি। এমনকি প্রচণ্ড রাগ দেখাই। ভিড় থেকে নিজেকে রক্ষা করার এটাই আমার একমাত্র কৌশল।’ বলেন জেনিফার লরেন্স।

আরও খবর : যে বলিউড সেলিব্রেটিরা একই স্কুলে পড়েছেন!

গোল্ডেন গ্লোব পুরস্কার পাওয়া এই নায়িকা জানান, নিজের পোষা কুকুরকে নিয়ে প্রতিদিন পার্কে হাঁটতে যান তিনি। আগে পার্কে গেলে জেনিফারকে ঘিরে চারদিকে শোরগোল পড়ে যেতে। ভক্তদের উৎপাতে নিজের মতো একটু সময় কাটানোর সুযোগ পেতেন না। এরপর ভক্তদের এড়ানোর এমন কৌশল বের করেন জেনিফার।

জেনিফার লরেন্সের সর্বশেষ মুক্তিপ্রাপ্ত ছবি ‘মাদার’ বক্স অফিসে তেমন ভালো ব্যবসা করতে পারেনি। এই ছবির ব্যর্থতা প্রভাব ফেলেছে নায়িকার ব্যক্তিগত জীবনেও। পরিচালক ড্যারন অ্যারনোফস্কির সঙ্গে তাঁর সম্পর্ক নাকি ছবিটি ফ্লপ হওয়ার কারণেই ভেঙে গেছে।

এসএইচ-০৯/০৪/১২ (বিনোদন ডেস্ক, তথ্যসূত্র : হিন্দুস্তান টাইমস)

শাহরুখ খান হেনস্থার শিকার?

জন্মদিন উদযাপন করতে পরিবারের সঙ্গে আলিবাগ গিয়েছিলেন বলিউড বাদশা। আর সেই যাত্রার সময়ই গেট ওয়ে অফ ইন্ডিয়ার কাছে হেনস্থার শিকার হলেন শাহরুখ। সৌজন্যে আলিবাগের বিধায়ক জয়ন্ত পাটিল। বাক্যবাণে এক লহমায় বলিউড বাদশাকে সিংহাসনচ্যুত করলেন তিনি। সেই ঘটনার ভিডিও প্রকাশ করেছে ভারতের সংবাদ সংস্থা এএনআই।

ওইদিন গেট ওয়ে অফ ইন্ডিয়া সংলগ্ন সমুদ্রসৈকতে বাঁধা ছিল শাহরুখের বিলাসবহুল ইয়ট(বোট)। আর তাকে একটি বার দেখার জন্য উপচে পড়ছিল ভিড়। অথচ শাহরুখ তখনও তার ইয়ট থেকে বের হননি।

এদিকে শাহরুখের ইয়ট তটে বাঁধা থাকায়, নিজের ইয়টটি তটে বাঁধতে পারছিলেন না আলিবাগের বিধায়ক জয়ন্ত পাটিল। তারও ভারতের মুম্বাই যাওয়ার কথা ছিল। আর এতেই মেজাজ হারান বিধায়ক।

আরও খবর : ফোটোগ্রাফারকে হুমকি অভিষেকের?

শাহরুখকে উদ্দেশ করে মারাঠি ভাষায় পাটিল বলেন, ‘আপনি সুপারস্টার হতে পারেন, তাই বলে গোটা আলিবাগকে কিনে রেখেছেন নাকি? আপনাকে আলিবাগে আসতে গেলে আমার অনুমতি নিতে হবে।’

পরে শাহরুখের ইয়টটি পার করেন নিজের ইয়টটিকে ঘাটে বাঁধেন বিধায়ক পাটিল। ভারতের জিনিউজ পত্রিকার খবরে বলা হয়, শাহরুখকে বিধায়ক পাটিলের কথার উত্তর দিতে দেখা যায়নি। ঘটনার পর কিং খান নিজের ইয়ট ছেড়ে বেরিয়ে আসেন এবং ভক্তদের উদ্দেশ্যে হাত নাড়েন।

এসএইচ-৫৪/১১/১১ (বিনোদন ডেস্ক)

ফোটোগ্রাফারকে হুমকি অভিষেকের?

হাঁটু পর্যন্ত ঝুলের একটি ড্রেস পরেছিলেন তিনি। তিনি অর্থাত্ ঐশ্বর্যা রাই বচ্চন। সেই পোশাক পরে গাড়িতে ওঠার সময় নায়িকার পায়ের একটু বেশি অংশ ফ্রেমবন্দি করে ফেলেন ফোটোগ্রাফাররা।

আর তাতেই শুনতে হল হুমকি। স্বয়ং অভিষেক বচ্চন এক ফোটোগ্রাফারকে ডেকে ঐশ্বর্যার ওই ছবি ডিলিট করার হুমকি দিয়েছেন বলে খবর। সম্প্রতি এই ঘটনা ঘটেছে ভারতের মুম্বাইতে।

মিস মালিনীর খবর অনুযায়ী, ঘনিষ্ঠ বন্ধু পরিচালক কর্ণ জোহর ও ডিজাইনার মণীশ মলহোত্রার সঙ্গে সম্প্রতি ডিনারে গিয়েছিলেন ঐশ্বর্যা ও অভিষেক। ডিনার সেরে বেরিয়ে গাড়িতে ওঠার সময় নাকি এই ঘটনা ঘটে। এক ফোটোগ্রাফারকে ডেকে রীতিমতো হুমকি দেন অভিষেক।

আরও খবর : এষা গুপ্তার সুইমসুটের ‘হট’ ছবি নিয়ে হৈ চৈ

তিনি কেন ঐশ্বর্যার ওই ছবি তুলেছেন, তা প্রথমে জানতে চান। সেই ফোটোগ্রাফার ওই বিশেষ ছবিটি তোলেননি বলে জানান। কিন্তু তাঁর কথা অভিষেক বিশ্বাস করেননি। গাড়িতে বসেই ওই ছবিটি তাঁকে ডিলিট করতে নির্দেশ দেন তিনি।

যদিও গোটা বিষয়টি নিয়ে এখনও পর্যন্ত অভিষেক বা ঐশ্বর্যা কেউই প্রকাশ্যে মুখ খোলেননি।

এসএইচ-৩০/১১/১১ (বিনোদন ডেস্ক, তথ্যসূত্র : আনন্দবাজার পত্রিকা)

এষা গুপ্তার সুইমসুটের ‘হট’ ছবি নিয়ে হৈ চৈ

মাস খানেক আগে টপলেস শুটের পোস্ট করার জন্য সোশ্যাল মিডিয়ায় অভিনেত্রী এষা গুপ্তাকে ট্রোলড হতে হয়েছিল। বিতর্কিত কমেন্টগুলো পোস্ট থেকে মুছে ফেললেও নিজের ছবিগুলো ইনস্টাগ্রাম থেকে সরাননি এষা।

ফের সুইমসুটে সাহসী ফোটোশুট করিয়েছেন অভিনেত্রী। সোশ্যাল মিডিয়ায় এষার নতুন ছবি পোস্ট হতেই কিন্তু ভাইরাল।

গ্ল্যামারাস অভিনেত্রীর ‘হট’ ফোটোশুট। সুইমসুটে ফের সাহসী ছবি পোস্ট করলেন এষা গুপ্তা।

আরও খবর : প্রসেনজিৎ এবার কিশোর–কণ্ঠী গায়ক

এর আগেও বেশ কয়েকবার সোশ্যাল মিডিয়ায় বেশ সাহসী ছবি পোস্ট করেছেন এষা। তার জন্য সমালোচিতও হতে হয়েছে। তবে কোনওবারই ট্রোলিংকে তোয়াক্কা করেননি অভিনেত্রী।

ট্রোল সোশ্যাল ওয়াল থেকে মুছে দিলেও, ছবিগুলি এখনও রয়েছে নায়িকার ইনস্টাগ্রাম পেজে।

সম্প্রতি ‘জি কিউ’ ম্যাগাজিনের জন্য একটি ফোটোশুট করেছেন এষা। বেশিরভাগ ছবিই সুইমসুটে।

ইনস্টাগ্রামে এই ছবিগুলি পোস্ট করেছেন এষা। ছবি কিন্তু ওয়েব দুনিয়ায় ইতিমধ্যেই ভাইরাল।

এসএইচ-২৯/১১/১১ (বিনোদন ডেস্ক, তথ্যসূত্র : আনন্দবাজার পত্রিকা)

অজয় দেবগণের সঙ্গে লাদেনের কি সম্পর্ক কি ছিল?

হ্যাঁ ঠিকই পড়েছেন৷ তবে এ সম্পর্ক পর্দার এপারে আর ওপারে৷ কারণ বলিউড ছবির ভক্ত ছিল লাদেন৷ আর ১৯৯৮সালে মুক্তি পাওয়া অজয়-কাজলের ছবি প্যায়ার তো হোনা হি থা’র একটি গান খুবই পছন্দের ছিল লাদেনের৷

একটি সংবাদ সংস্থার খবর অনুযায়ী, ওসামা বিন লাদেন সম্পর্কিত একগুচ্ছ গোপন ফাইল প্রকাশ করল সিআইএ। অন্তত ৪ লক্ষ ৭০ হাজার ফাইল দেখেছে মার্কিন গোয়েন্দারা। এর মধ্যে রয়েছে লাদেনের ছেলে হামজার একটি ভিডিও, যা আগে কেউ দেখেনি। হামজা বিন লাদেনের একটি অডিও মেসেজও আছে সেই গোপন ফাইলে। বুধবার ওই ফাইলগুলি প্রকাশ করা হয়েছে।

আরও খবর : অনন্ত জলিল এবার সাহাবীদের নিয়ে সিনেমা তৈরি করবেন

জানা গিয়েছে, লাদেনের সংগ্রহে ছিল অনেক বলিউডি গান৷ যেখানে অজয়-কাজলের, অজনবি মুঝকো ইতনা বতা গানটিও ছিল৷ এছাড়া ওসামা বিন লাদেনের সংগ্রহে ছিল টম অ্যান্ড জেরি কার্টুনের কালেকশন৷ ছিল ব্লু ফিল্মও৷ ২০১১ সালের মে মাসে পাকিস্তানে লাদেনের বাসভবনে অভিযান চালিয়ে এই ফাইল সংগ্রহ করে সিআইএ। ওই অভিযানে লাদেনকে হত্যা করা হয়।

একটি ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে হামজা বিন লাদেনকে। এতদিন পর্যন্ত যার ছেলেবেলাই ছবিই শুধু দেখেছে সবাই। এখন দেখা যাচ্ছে তার মুখে সরু গোঁফ, কোনও দাড়ি নেই। অন্য একটি লোকের সঙ্গে কার্পেটের উপর বসে রয়েছে সে। পিছনে একজন কোরান পাঠ করছে। তার বিয়ের ভিডিও এটি। বিয়েতে শপথ নেওয়ার পর এক ব্যক্তি চিৎকার করে বলছেন ‘তকবির’। এটি আনন্দ প্রকাশের ধর্মীয় ভাষা।

পাকিস্তানের অ্যাবোটাবাদে লাদেনের বাড়িতে অভিযান চালিয়ে বিপুল সংখ্যক নথি, ছবি ও কম্পিউটার ফাইল উদ্ধার করে মার্কিন নেভি সিল। এই নথির মধ্যে এর আগে ২০১৫ সালের মে মাসে, ২০১৬ সালের মার্চে ও চলতি বছরের জানুয়ারিতে কিছু নথি প্রকাশ করা হয়। এই নিয়ে চতুর্থ দফায় নথি প্রকাশ করল সিআইএ। রয়েছে ২২৮টি ছবি। হাতে লেখা একটি ডায়েরি, ১০,০০০ ভিডিও।

এসএইচ-৩১/০৬/১১ (বিনোদন ডেস্ক, তথ্যসূত্র : কলকাতা২৪)

ইউটিউব জুড়ে তিশার ভিডিওর ঝড়!

পহেলা ডিসেম্বর মুক্তি পাচ্ছে নির্মাতা তৌকীর আহমেদ এর পরিচালনায় তারই নতুন সিনেমা ‘হালদা’। এতে মূল চরিত্রে অভিনয় করেছেন অভিনেতা মোশাররফ করিম ও নুসরাত ইমরোজ তিশা।

সম্প্রতি ইউটিউব চ্যানেলে প্রকাশ হয় সিনেমাটির প্রথম গান। এর মধ্যে গানটি দেখা হয়েছে ১ লক্ষ ১০ হাজারের বেশিবার।

আরও খবর : মিস ওয়ার্ল্ড-২০১৭ এর ‘শীর্ষস্থানে’ বাংলাদেশের জেসিয়া!

‘নোনা জল’ শিরোনামের গানটি যৌথভাবে রচনা করেছেন পিন্টু ঘোষ ও তৌকীর আহমেদ। নিজের সুর-সংগীতে পিন্টু কণ্ঠও দিয়েছেন সানজিদা মাহমুদ নন্দিতার সঙ্গে।

ছবিতে আরও আছেন জাহিদ হাসান। তাকে দেখা যাবে খলচরিত্রে। মোশাররফ থাকছেন জেলের ভূমিকায়। আর তাদের সঙ্গে তিশা অভিনয় করেছেন স্বপ্নবাজ তরুণীর চরিত্রে।

এছাড়া আছেন দিলারা জামান, ফজলুর রহমান বাবু, শাহেদ আলী, রুনা খান প্রমুখ। প্রযোজনায় আমরা ক’জন। সংগীত পরিচালনায় পিন্টু ঘোষ।

এসএইচ-০৪/০৪/১১ (বিনোদন ডেস্ক)