ভ্যালেন্টাইনস ডে-তে ‘ভাড়াটে বয়ফ্রেন্ড’ হতে চেয়ে ফেসবুকে বিজ্ঞাপন তরুণ ব্যবসায়ীর

ভ্যালেন্টাইনস ডে উপলক্ষ্যে সিঙ্গল মহিলাদের জন্য অভিনব ‘ভাড়াটে বয়ফ্রেন্ড’ অফার নিয়ে শোরগোল ফেললেন গুরুগ্রামের যুবক।

রাত পোহালেই ভ্যালেন্টাইনস ডে। আগামীকাল, কিশোর-কিশোরী হোক বা তরুণ-তরুণী—অনেকেই নিজের মনের মানুষের সঙ্গে দিনটি উদযাপন করার প্রস্তুতি নিচ্ছেন।

কিন্তু, এর মাঝেও, এমন অনেকে আছেন যাঁরা এখনও তথাকথিত ‘সিঙ্গল’ জীবনযাপন করছেন। বা বলা ভাল, তাঁদের ওপর এখনও সেন্ট ভ্যালেন্টাইনের কৃপাদৃষ্টি পড়েনি। ‘কিউপিড’ তাঁদের হৃদয়ভেদ করেনি। সেই তালিকায় বহু মহিলাও রয়েছেন।

আর সেই সব ‘ইচ্ছুক’ মহিলা ও তরুণীদের জন্যই এক অভিনব প্রস্তাব নিয়ে এসেছেন ২৬ বছর বয়সী গুরুগ্রামের ব্যবসায়ী শকুল গুপ্ত। ভ্যালেন্টাইনস ডে-র দিন ‘বয়ফ্রেন্ড অন রেন্ট’ বা ভাড়াটে পুরুষসঙ্গী হতে চেয়ে নিজের ফেসবুকে রীতিমতো বিজ্ঞাপন দিয়েছেন এই যুবক।

শুধু তাই নয়। বিভিন্ন প্যাকেজ ও তার দর কী হবে তাও দিয়ে রেখেছেন ওই যুবক। যেমন শুধু হাতে হাত, বা কোমরে হাত, বা চুম্বন—সবকিছুর জন্যই আলাদা আলাদা রেট। অবিশ্বাস্য মনে হলেও সত্যি। শকুলের এই পোস্ট চারদিকে ছড়িয়ে পড়েছে তাই নয়। আলোড়নও ফেলে দিয়েছে।

এক নজরে শাকুলের দেওয়া প্যাকেজ:

প্যাকেজ ১— হাত ধরা ও কাঁধে হাত রাখা

প্যাকেজ ২— হাত ধরা, কাঁধে হাত রাখা, জড়িয়ে ধরা, গালে ও কপালে চুম্বন।

প্যাকেজ ৩— হাত ধরা, কাঁধে হাত রাখা, জড়িয়ে ধরা, গালে, কপালে ও ঠোঁটে চুম্বন।

প্যাকেজ ৪— যা চাইবেন!

নিজের ফেসবুকে এই প্যাকেজগুলির আরও বিস্তারিত বিবরণ দিয়েছেন শকুল। সেখানে বলা হয়েছে, চাইলে একসঙ্গে নেটফ্লিক্স দেখবেন, তিনি মেক-আপ মডেল হতেও তৈরি তিনি।

শুধু তাই নয়, ইচ্ছুক মহিলাদের তিনি নিজের বিলাসবহুল অডি গাড়িতে বিনামূল্যে চড়াবেন বলেও জানিয়েছেন শকুল। নিজের হাতে রান্না করেও খাওয়াবেন।

এখানেই শেষ নয়। তাঁকে প্রস্তাব পাঠানোর সময় কোনও মহিলা যদি একটি বিশেষ ‘প্রোমোকোড’ ব্যবহার করেন, তাহলে সেক্ষেত্রে তাঁরা অতিরিক্ত ২০ শতাংশ ছাড় পাবেন বেল আশ্বাস দিয়েছেন এই ব্যবসায়ী।

তবে, এর পাশাপাশি, কিছু কিছু বিষয়ে তীব্র আপত্তিও রয়েছে তাঁর। সেগুলিও তিনি নিজের ফেসবুকে জানিয়ে দিয়েছেন।

 

জেনে নিন, বিশ্বের দামি ১০ পানীয়

সুরা বা মদ্যপান- কারও জন্য নেশা আবার কারও জন্য আভিজাত্য প্রদর্শন। আর এই নেশা এবং আভিজাত্যকে কেন্দ্র করে অনেকে সুরাকেন্দ্রিক পেশাও বেছে নিয়েছেন। এমন অনেক দামি মদিরা বা সুরা আছে যার দাম এবং নাম শুনলে চোখ কপালে উঠতে পারে। এসব তরলের বোতল ডিজাইনেও কাজ করেছেন বাঘা বাঘা সব ডিজাইনার। পানীয়গুলোর বোতল আবার স্বর্ণ, রূপা, হিরাখচিত।

১. হেনরি আইভি হেরিটেজ কোনিয়াক

এখন পর্যন্ত বিশ্বের সবচেয়ে দামি মদের নাম কোনিয়াক। প্রখ্যাত ডিজাইনার জোস্ ডাভালোস এই পানীয়ের বোতলটা ডিজাইন করেছেন। আর নকশার কাজে বেছে নিয়েছেন স্বর্ণ ও প্লাটিনাম। বোতলটি সাজানো হয়েছৈ ছয় হাজার ৫০০ হীরার টুকরা বসিয়ে। আর সুরাটি ১০০ বছরের বেশি সময় ধরে কাঠের পিপেতে বন্দি ছিল। বিশ্বের সবচেয়ে দামি এই মদের দাম ১২ কোটি ৯ লাখ টাকা।

২. টাকিয়া লেঃ ৯২৫

পানীয়ের জন্য নয়, বিখ্যাত বোতলের জন্য। এর অর্ধেক খাঁটি প্লাটিনাম দিয়ে তৈরি আর বাকি অংশে ব্যবহার করা হয়েছে হোয়াইট গোল্ড বা সাদা স্বর্ণ। এর জন্য খরচ করতে হবে মাত্র ৯ কোটি ৯৪ লাখ টাকা।

৩. মাস্টার অফ মল্ট

এই সুরার বোতলটি ১০৫ বছরের পুরনো। আর বোতলভর্তি এ মদ উদ্ধার করা হয় ২০১১ সালে। এই পানীয়ের দাম নাকি ৮ কোটি ৯০ লাখ টাকা।

৪. ম্যাকালান স্কচ হুইস্কি

এটির ইতিহাস অবশ্য খুব বেশি পুরনো নয়। মাত্র ৬৪ বছরের। আর এই হুইস্কির দাম ২ কোটি ৯৩ লাখ টাকা।

৫. ডেলিমোর স্কচ হুইস্কি

দামি দামি হুইস্কির খবর যারা রাখেন তারা এটি তরল স্বর্ণ বলেই বেশি চেনেন। ১৮৬৮ সালে একটি বিশেষ প্রক্রিয়ায় তৈরি হয় ডেলিমোর স্কচ হুইস্কি। দাম মাত্র ১ কোটি ২৭ লাখ টাকা।

৬. ডেলিমোর ৬৪

যদি এই নামের কোনো বোতল খোঁজা হয় তাহলে মাত্র তিনটি খুঁজে পাওয়া যাবে। আর প্রতিটির বয়স ৬৪ বছর। সুরায় ব্যবহৃত উপাদানগুলোর মধ্যে সবচেয়ে ভালো উপাদান নাকি এটিতে ব্যবহার করা হয়েছে। এর জন্য নাকি ১ কোটির একটু বেশি টাকা খরচ করতে হয়েছে।

৭. ম্যাকালান স্পেশাল হুইস্কি

এই পানীয় উপভোগ করার জন্য খরচ করতে হবে ৪৭ লাখের কিছু বেশি টাকা। কিন্তু সমস্যা অন্যত্র- মাত্র ৫০ বোতল করে তৈরি করা হয় এটি। বিশ্ব ধনীদের পানশালায় এটি পাওয়া যায়।

৮. ম্যাকালান সিঙ্গল মল্ট

দামের জন্য সুপরিচিত তো বটেই, স্বাদে, গন্ধেও নাকি অতুলনীয় ম্যাকালান সিঙ্গল মল্ট। বোতলের ঢাকনাটি ক্রিস্টালে তৈরি। আর বোতলগুলো ৬০ বছর আগে তৈরি করা হয়েছে। দাম ১৩ লাখ টাকা।

৯. হাইহাল্ড পার্ক

এটির মাত্র ২৭৫ টি স্টক রাখা হয়েছিল। আর বাজারে এসেছিল ১৯৬০ সালের দিকে। এর জন্য ১ লাখ টাকা খরচ করলেই হবে।

১০. গগ্লেনফিডিচ স্পেশাল সিঙ্গল মল্ট হুইস্কি

এটির মাত্র ৫০ বোতল তৈরি করা হয়। এটির দামও লাখ টাকার কাছাকাছি। আর ৫০ বছরের পুরনো।সূত্র- বাংলা ইনসাইডার

২০১৮ সালে প্রেমের সম্পর্ক কেমন যাবে? দেখুন সম্পর্ক নিয়ে সাজানো ফ্রেমে

যারা চুপিসারে প্রেম করছেন বা নতুন বছরে প্রেমে পড়বেন বলে ভাবছেন, তাদের জন্য এবারে প্রেমের সম্পর্কের রাশিফল নিয়ে অ্যালবাম সাজানো হয়েছে।

মেষঃ প্রেমের ক্ষেত্রে ভালো মন্দ মিশ্র ফল পাওয়া যাবে নতুন বছর ২০১৮ সালে। প্রেম জীবনে টুইস্টও আসবে। তবে শুরুর দিকে কিছু অসুবিধা দেখা দিতে পারে জানুয়ারি মাসে।

বৃষ : বছরের শুরুতে প্রেমের বিষয়গুলি আপনার জীবনে ঝলকানি ছড়িয়ে দেবে। যেভাবে চান সঙ্গী কিংবা সঙ্গীনীর সঙ্গে ভ্রমণে যেতে পারবেন কিংবা রাজকীয় ডিনারে অংশ নেবেন।

মিথুন : প্রেম এবং সম্পর্কের ক্ষেত্রে বছরটি বেশ পজিটিভ হবে। প্রত্যেকটি অবস্থানকেই উপভোগ করবেন। এই স্বভাবই আপনাকে সঙ্গী কিংবা সঙ্গীনীর প্রতি আকৃষ্ট করবে।

কর্কট : প্রথমের দিকের মাসগুলিতে সঙ্গী কিংবা সঙ্গীনীর সঙ্গে সম্পর্কের কিছু টানাপোড়েন তৈরি হতে পারে। ১৭ জানুয়ারি থেকে ৭ মার্চের মধ্যে এই অবস্থা চলতে পারে।

সিংহ : প্রেমে উত্থান-পতন হবে। প্রেম-সম্পর্ক নিয়ে অসন্তুষ্টি এবং অসন্তোষ দেখা দেবে পুরো বছর ধরেই। কিন্তু বৃহস্পতির আশীর্বাদ পাবেন আপনি।

কন্যা : প্রাথমিকভাবে সম্পর্কে অবনতি কিংবা ছাড়াছাড়িও হতে পারে। জানুয়ারি-ফেব্রুয়ারিতে ইগোর সমস্যা দেখা দিতে পারে। তবে রাগকে নিয়ন্ত্রণ করতে হবে।

তুলা : প্রেম-ভালবাসা এই বছরে পজিটিভ। বছরের শুরু থেকেই ভাল যাবে। ১৭ জানুয়ারি থেকে ৭ মার্চ পর্যন্ত সময় প্রেম এবং রোমান্সে পূর্ণ থাকবে।

বৃশ্চিক : বছরের শুরুতে সম্পর্কে অস্বস্তিজনক কিছু ঘটতে পারে। সঙ্গী কিংবা সঙ্গীনী অসুস্থ হয়ে পড়তে পারেন। ১৭ জানুয়ারি থেকে ৭ মার্চের মধ্যে সময়ে সম্পর্কে তীব্রতা আসবে কিংবা উৎসাহিত হওয়ার মতো দিকে যাবে।

ধনু : বছরের শুরুর দিকে সম্পর্কে টানাপোড়েন হতে পারে। অপর দিকে বছরের দ্বিতীয় অংশ ভাল যাবে। যারা প্রেমের সম্পর্কে রয়েছেন তাদের ক্ষেত্রে ১৭ জানুয়ারি থেকে শুরু হওয়া সময়টা বেশ ভালো।

কুম্ভ : প্রেম এবং সম্পর্কের ক্ষেত্রে মিশ্র ফল পাওয়া যাবে নতুন বছর ২০১৮ সালে। বছরের প্রথমার্ধ আগে থেকেই চলে আসা সম্পর্কের ক্ষেত্রে ভালো সময়।

মীন : প্রেমের সম্পর্কে বছরটি যাবে বিভিন্ন রকমভাবে। বিবাহিত জীবনে সম্পর্কে টানাপোড়েন চলতে পারে। নিজের রাগের কারণেই সেটা হবে।

 

এক রাতে কত আয় হয়, খোলাখুলি জবাব এসকর্টের

রাশিয়ার এই শিশুটি এখন পৃথিবীর সবচেয়ে সুন্দর মেয়ে!

হালকা নীলচে রঙের চোখ, যেন সৃষ্টিকর্তার হাতে গড়া এক স্বর্গীয় শিশু। প্রথমবার মেয়েটিকে দেখলে মনে হতে পারে, আপনি বুঝি একটি ছোট্ট পুতুল দেখেছেন। বয়স ৬ এর ঘরে পা দিতে না দিতেই এই ছোট্ট মেয়েটি পেয়ে গেলো পৃথিবীর সবচেয়ে সুন্দর মেয়ে হওয়ার খেতাব। রাশিয়ায় বসবাসকারী আনাসতাসিয়া ইয়াজেভা নামের ছোট্ট মেয়েটির ইন্সটাগ্রাম ফলোয়ার এখন প্রায় পাঁচ লক্ষ তেইশ হাজার জন ছাড়িয়েছে। শিশুদের বিখ্যাত রাশিয়ান ব্র্যান্ড ‘ছবি কিডস’ সহ খ্যাতিমান ব্র্যান্ডগুলোও তাদের ক্যাম্পেইনের জন্য লাইন দিয়ে বসে আছে আনাসতাসিয়ার কাছে।

২০১৫ সালে যখন আনাসতাসিয়ার বয়স চার তখন তার মা, মেয়ের সুন্দর সুন্দর ছবি তুলে সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রকাশ করেন। আর তাতেই কন্যার আপলোড করা প্রতিটি ছবিতে বয়ে যেতে থাকে অজস্র প্রশংসনীয় মন্তব্যের স্রোত। তবে এখন পর্যন্ত কন্যার ঐ ইন্সটাগ্রামের অ্যাকাউন্টটি পরিচালনা করছেন আনাসতাসিয়ার মা আন্না।- প্রিয়.কম

মা আন্নার সঙ্গে আনাসতাসিয়া। ছবি সংগৃহীত। 

সূত্র: নিউ ইয়র্ক পোস্ট। 

সবসময় ফিট থাকতে চান? তাহলে মেনে চলুন সাইফ আলি খানের ৮টি পরামর্শ

অভিনেতা সাইফ আলি খান সম্প্রতি ফিট থাকার উপায় নিয়ে কয়েকটি পরামর্শ দিয়েছেন। এ লেখায় তুলে ধরা হলো সেই পরামর্শগুলো। এক প্রতিবেদনে বিষয়টি জানিয়েছে হিন্দুস্তান টাইম


১. ডায়েটিং মানে না খাওয়া নয় অনেকেই ডায়েটিংকে খাবার না খাওয়ায় রূপান্তরিত করেন। যদিও বিষয়টি ভুল। ডায়েটিং মানে খাবার বাদ দেওয়া নয়। অনেকেরই আবার ধারণা ডায়েটিংয়ে ভালো খাবার বাদ দিয়ে বিরক্তিকর খাবার খেতে হবে বা সম্পূর্ণ বাদ দিতে হবে।

যদিও বাস্তবে ডায়েটিংয়ে আপনি খাবার খেতে পারবেন এবং তাতে ভালো অনুভবও করতে পারবেন। এছাড়া একই সঙ্গে আপনি দেহের ওজনও কমাতে পারবেন। এজন্য সঠিক খাবার খেতে হবে, যার মাধ্যমে আপনি শরীর ও মনে ভালো অনুভূতি তৈরি করতে পারবেন এবং জীবনযাপনের মান বাড়াতে পারবেন।

২. রুটিন মস্তিষ্কের রসায়ন অত্যন্ত জটিল। কখনো আমি জিমে যেতে অস্বস্তিবোধ করে এবং খাওয়ার পর শান্তি অনুভব করি। এ বিষয়টি মূলত আপনার রুটিনের ওপর নির্ভর করবে।

৩. ডায়েট, শারীরিক অনুশীলন ও ঘুম এ সময়ে নিজেকে ভালো ও তরুণ দেখানো ক্রমে গুরুত্বপূর্ণ হয়ে উঠছে। এ কারণে আপনার তিনটি বিষয়ে গুরুত্ব দিতে হবে- ডায়েট, শারীরিক অনুশীলন ও ঘুম। এক্ষেত্রে বাড়াবাড়ি করার কোনো প্রয়োজন নেই। সার্জিক্যাল কোনো উপায়ও মেনে চলার প্রয়োজন নেই। মাত্র কয়েকটি নির্দিষ্ট উপায়েই ফ্রেশ দেখানো সম্ভব, যা হলো ভালোভাবে ডায়েট মেনে চলা, যথাযথ শারীরিক অনুশীলন করা ও পর্যাপ্ত ঘুমানো।

৪. শারীরিক অনুশীলন বহু মানুষই বলেন, তারা ব্যায়াম বা শারীরিক অনুশীলনের জন্য যথেষ্ট সময় পান না। যদিও এটি হাস্যকর কথা। আপনি যদি গোসল করার জন্য সময় পান কিংবা অন্য বিষয়কে গুরুত্ব দেন তাহলে শারীরিক অনুশীলনের জন্যও সময় পাবেন। এক্ষেত্রে আপনার জীবনের ওপর শারীরিক অনুশীলনের প্রভাবটি বুঝতে হবে। এতে এমনকি আপনার সম্পর্কও উন্নত হবে।

৫. শরীরের কথা শুনুন কখনো আপনার শারীরিক অনুশীলনের শুরুটা ভালোই হয়। কিন্তু যখন এ অনুশীলন আরও বেড়ে যায় তখন পরিস্থিতি তেমন থাকে না। তাই এটি সঠিক নয়। আপনাকে কয়েকটি নির্দিষ্ট বিষয় মেনে চলতে হবে। আপনার নিজের শরীরের কথা শুনতে হবে। শারীরিক অনুশীলন নির্দিষ্ট মাত্রায় করতে হবে। যখন ক্লান্ত হবেন তখন বিশ্রাম করতে হবে।

৬. সঠিকভাবে সাজাতে হবে আপনার মুখের সবকিছুরই প্রভাব পড়বে। এ কারণে আপনার জীবনকে সঠিকভাবে সাজাতে হবে। আপনি যদি বিষয়গুলো গুছিয়ে নিতে পারেন তাহলে বুঝবেন সবকিছু ভালোভাবে সম্পন্ন হয়েছে।

৭. ভালোভাবে জীবনধারণ সুন্দর মানুষ তারাই যারা জানে কিভাবে ভালোভাবে জীবনধারণ করতে হয়। এ কারণে আপনার দেহের প্রয়োজনীয়তার দিকে মনোযোগী হোন। তাকে কোনো দিকে চালিত করার জন্য জোর খাটানোর প্রয়োজন নেই।

৮. নিয়ম মেনে চলুন মানুষের জিন হলো শুধু প্রবণতা মাত্র। সাধারণ কিছু নিয়ম মেনে চললেই আপনি তাকে বদলাতে পারবেন, ভালোভাবে বাঁচতে পারবেন

অপহরণের পর কী ঘটেছিল মিস ইউনিভার্সের ভাগ্যে!

জুমবাংলা ডেস্কঃ ১৯৯৫ সালের ২৮ জুন আফ্রিকার ওয়েস্টার্ন কেপ এর সেজফিল্ডের সাধারণ একটি ঘরে জন্ম হয় ডেমি-লেইয়ের। সেদিনের সেই ছোট্ট মেয়েটিই আজ মিস ইউনিভার্স-২০১৭ এর মুকুট জয়ী। গতকাল রোববার যুক্তরাষ্ট্রের লাস ভেগাসে আয়োজিত এই প্রতিযোগিতার আসরে ডেমিকে মুকুট পরিয়ে দেন গত বছরের ‘মিস ইউনিভার্স’ ইরিস।

আফ্রিকা ছেড়ে নিউইয়র্কের বাসিন্দা হন ডেমি-লেই। নর্থ-ওয়েস্ট ইউনিভার্সিটি থেকে বিজনেস ম্যানেজমেন্টে পড়াশোনা শেষ করেছেন কিছুদিন আগে। ইংরেজি এবং আফ্রিকান, দুই ভাষাতেই দক্ষ তিনি।

২২ বছর বয়সী ডেমি দক্ষিণ আফ্রিকার পশ্চিম কেপ রাজ্যে বড় হন। সম্প্রতি তিনি নর্থ-ওয়েস্ট ইউনিভার্সিটি থেকে ব্যবস্থাপনা বিষয়ে ডিগ্রি নিয়েছেন। পড়াশোনার পাশাপাশি ডেমি নারীদের আত্মরক্ষার প্রশিক্ষণ দেন। ডেমি ‘মিস সাউথ আফ্রিকা’ হওয়ার এক মাস পরই একবার অপহৃত হয়েছিলেন। কিন্তু পিস্তলের সামনে মাথা নত করেননি এই সুন্দরী। বরং এই ঘটনার পর আত্মরক্ষার কৌশল শেখার নেশা তাঁর আরও বেড়ে যায়।

ডেমি-লি নিল-পিটার্সকে মুকুট পরিয়ে দেন গত বছরের ‘মিস ইউনিভার্স’ ইরিস।সাহসী ডেমি দক্ষিণ আফ্রিকার মেয়েদের আত্মরক্ষার কৌশল শেখান এবং তাঁদের স্বাবলম্বী হতে উৎসাহিত করেন। ‘মিস ইউনিভার্স’ অনুষ্ঠানের আসরে তিনি বলেন, ‘এখনো অনেক দেশে একই পরিশ্রমে পুরুষদের থেকে নারীদের কম পারিশ্রমিক দেওয়া হয়। এটি একদম উচিত না। পারিশ্রমিক থেকে শুরু করে প্রতিটি ক্ষেত্রে নারী-পুরুষের সম-অধিকার প্রতিষ্ঠা হওয়া উচিত।’

এবার প্রথম রানারআপ হয়েছেন ২২ বছর বয়সী ‘মিস কলম্বিয়া’ লরা গঞ্জালিজ। তিনি কৈশোর থেকেই অভিনেত্রী হওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছেন। আর দ্বিতীয় রানারআপ ‘মিস জ্যামাইকা’ ডেভিনা ব্যানেট। ২১ বছর বয়সী এই প্রতিযোগী মডেলিংয়ের সঙ্গে যুক্ত। ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস