যুবককে কষে থাপ্পড় মারার হুমকি জারিন খানের

সোশ্যাল মিডিয়ায় অভিনেত্রীদের ট্রোল করার ঘটনা আজকাল প্রায় দিনই ঘটে। কেউ ঠিকমতো পোশাক পড়ার পরামর্শ দেন, কেউ আবার অশ্লীল মন্তব্য করে বসেন। কখনও কখনও তা শালীনতার মাত্রা ছাড়িয়ে যায়।

সেজন্য কেউ সোশ্যাল সাইটেই পাল্টা ক্ষোভ উগড়ে দেন, কেউ বা সেসব মন্তব্যকে উপেক্ষা করেন। তবে যাদের কাছে ট্রোল হতে হয়েছে তাদেরকে সামনে পেয়ে প্রকাশ্যে অপমানের সুযোগ সচরচার কেউই পান না।

আরও খবর : প্রিয়ার অন্তরে কে?

তবে এমটি ট্রোল পুলিশ শো এবার এমনই সুযোগ করে দিচ্ছে। যে শোয়ে অতিথি হিসাবে এসেছিলেন অভিনেত্রী জারিন খান। সেখানে তাকে ট্রোল করেছেন এমনই এক ব্যক্তিকে প্রকাশ্যে অপমান করে মনের জ্বালা মিটিয়ে নিলেন জারিন।

প্রসঙ্গত, ওই যুবক জারিনকে তার ভারি শরীর নিয়ে কটাক্ষ করেছিলেন জারিনকে। প্রশ্ন তুলেছিলেন জারিনের অভিনয় দক্ষতা নিয়েও। আর তাতেই ক্ষোভে ফেটে পড়েন জারিন। যুবককে কষে থাপ্পড় মারার হুমকিও দেন।

স্পষ্ট জানান, কিছু বলার হলে সামনে বলুন পেছনে নয়। শেষে শোয়ের সঞ্চালক রণবিজয় শান্ত করেন জারিন খান। আর সেই ভিডিওই নিজের সোশ্যাল সাইটে শেয়ার করেছেন জারিন।

এসএইচ-১৪/২১/০২ (বিনোদন ডেস্ক, তথ্যসূত্র: জি নিউজ)

অপু-সাকিবের তালাক বৃহস্পতিবার

‘শাকিব-অপু’ বর্তমানের সবচেয়ে আলোচিত-সমালোচিত জুটির নাম। আর মাত্র দুই দিন পরেই আনুষ্ঠানিকভাবে বিবাহ বিচ্ছেদ হচ্ছে তাদের। নিয়ম অনুযায়ী আগামি ২২ ফেব্রুয়ারি বৃহস্পতিবার শাকিবের পাঠানো তালাকনামার ৯০ দিন পূর্ণ হবে। এর মধ্যে দু’জনের সমঝোতা না হলে বিয়ে বিচ্ছেদে আর কোনো বাধা থাকবে না।

অস্ট্রেলিয়া থেকে মঙ্গলবার দেশে ফিরেছেন শাকিব খান আর গত রোববার সম্পর্কের বৃত্তান্ত নিয়ে টেলিভিশনে কথা বলেছেন অপু বিশ্বাস। আগামি কয়েক দিনের মধ্যে অপুর এই কথা প্রচার হবে একটি বেসরকারি টেলিভিশনের ‘এবং পূর্ণিমা’ অনুষ্ঠানে। মূলত পূর্ণিমার অতিথি হিসেবেই অনুষ্ঠানে এসেছিলেন অপু বিশ্বাস।

আরও খবর : প্রিয়া প্রকাশ আদালতের দারস্থ

রোববার রেকর্ড করা অনুষ্ঠানে অপু তার সাম্প্রতিক বিষয় নিয়ে কথা বলেছেন। শাকিবের সাথে ডিভোর্স হওয়া ও সামনে তার অভিনয়ে ফেরা না ফেরা নানান বিষয়ে মুখ খুলেছেন। অনুষ্ঠানটির জন্য ড্রয়িং রুমের মতো করে বিশাল সেট বানানো হয়েছে। অতিথিদের নিজ হাতে কফি বানিয়ে খাওয়ান পূর্ণিমা। ঘরোয়া আয়োজনে প্রাণবন্ত আড্ডা হয় অতিথিদের সাথে।

অনুষ্ঠানটির সর্ম্পকে পূর্ণিমা বলেন, এই অনুষ্ঠান উপস্থাপনার কাজটি বেশ উপভোগ করছি।

অপু বিশ্বাস বলেন, ইদানিং ব্যক্তিগত বিষয়গুলো এতো বেশি চর্চা হচ্ছে, চুপ করে থাকার কোনো উপায় থাকে না। ‘এবং পূর্ণিমা’ অনুষ্ঠানে অনেক কথাই বলেছি। আমি চাই সেগুলো দর্শকরা অনুষ্ঠান থেকেই শুনুক।

এদিকে সোমবার ভোরে অস্ট্রেলিয়া থেকে দেশে ফিরেছেন শাকিব। মঙ্গলবার থেকে
‘চিটাগাংইয়া পোলা নোয়াখাইল্লা মাইয়া’ ছবির শুটিংয়ে অংশ নেয়ার কথা রয়েছে তার।

শাকিব খান বলেন, মাত্রই দেশে ফিরলাম। অস্ট্রেলিয়ায় অসাধারণ সময় পার করেছি। ‘সুপারহিরো’ ছবির ৬৫ শতাংশ কাজ শেষ। মঙ্গলবার বিএফডিসিতে শুটিংয়ে অংশ নেয়ার কথা আছে। এখন দেখা যাক।

গত ২২ নভেম্বর চিত্রনায়িকা অপু বিশ্বাসকে তালাক নোটিশ দিয়েছিলেন চিত্রনায়ক শাকিব খান। বিষয়টি মিটমাটের জন্য ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন অপু বিশ্বাসকে নিয়ে বসেছিল। কিন্তু শাকিব দেশে না থাকায় বা সাড়া না দেয়ায় সুরহা হয়নি। তাই তালাক নোটিশ বাতিলের জন্য হাতে সময় আছে মাত্র দুই দিন।

শাকিবের ঘনিষ্ঠ একজন জানান, সিটি করোপরেশনে শাকিবের যাওয়ার সম্ভাবনা নেই। তিনি এখন কাজ নিয়েই ব্যস্ত থাকবেন। শিগগিরই ছবির কাজে ভারত ও স্কটল্যান্ডে যাবেন তিনি।

জানা যায়, ছেলে আব্রাম খান জয়ের জন্য খরচ বাবদ এখন প্রতি মাসে অপুকে এক লাখ টাকা দিচ্ছেন শাকিব। তালাক কার্যকর হওয়ার পর অপু বিশ্বাসকে বিয়ের দেনমোহর বাবদ সাত লাখ টাকা পরিশোধ করবেন তিনি।

এসএইচ-১২/২০/০২ (বিনোদন ডেস্ক, তথ্যসূত্র : জুমবাংলা)

প্রিয়ার ‘ওরু আদার লাভ’ নির্মাতাকে পুলিশের নোটিশ

ওরু আদার লাভ’ ভারতের মালায়লাম ভাষায় নির্মিত একটি রোমান্টিক-কমেডি ঘরানার ছবি। চলতি বছরের ১৪ জুন সিনেমাটি মুক্তির কথা রয়েছে। ‘ওরু আদার লাভ’ এর বঙ্গানুবাদ করলে অর্থ দাঁড়ায় ‘সেরা প্রেমালাপ বা শ্রেষ্ঠ প্রেমালাপ’।আর সম্প্রতি নেট দুনিয়ায় ভাইরাল হয়ে যাওয়া এ সিনেমার কিছু গানের দৃশ্যও সেই সেরা প্রেমালাপের ইঙ্গিতই দিচ্ছে। কিন্তু সেক্ষেত্রে মুখের চেয়ে চোখের ভাষাই নজড় কেড়েছে ভক্তদের।

প্রিয়া প্রকাশের চোখের চাহনি, পলক ফেলা দৃশ্য স্কুল-কলেজ পড়ুয়াদের প্রেমালাপের সেই আবেগ অনুভূতিকেই তুলে ধরেছে। আর এতেই সিনেমার চরিত্রগুলোও দারুণ জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। সবকিছুই ঠিকঠাক ছিল, কিন্তু এবার বিপত্তি বাধল গানের কথা গুলো নিয়ে।

আরও খবর : উত্তাপ ছড়াচ্ছে ক্যাটরিনার ছবি

মুসলিমদের ধর্মীয় ভাবাবেগে আঘাত করেছে প্রিয়া প্রকাশ ভারিয়েরের গান। এমন সুনির্দিষ্ট অভিযোগের ভিত্তিতে এবার ‘ওরু আদার লাভ’ ছবির পরিচালককে নোটিস পাঠিয়েছে পুলিশ। ভারতের হায়দ্রাবাদের ফলকনুমা পুলিশের তরফে পাঠানো হয়েছে নোটিস। একটি কপি ডাক মারফৎ পৌঁছাবে পরিচালক ওমর লুলুর কাছে। অন্যটি তাঁকে হাতেই ধরানো হবে। সেজন্য ফলকনুমা পুলিশের একটি দল কেরালার উদ্দেশে রওনা হয়ে গিয়েছে।

ওমর লুলুর ‘ওরু আদার লাভ’ ছবিতে অভিনয় করছেন প্রিয়া। সেখানেই রয়েছে ‘মাণিক্য মালারায়ি পুভি’ গানটি। ইতিমধ্যেই গানের তালে জনপ্রিয় হয়েছে ভারতের দক্ষিণী সিনেমার নবাগতা অষ্টাদশী কিশোরী অভিনেত্রী প্রিয়ার আঁখি পল্লবের ইশারা। নেটদুনিয়া কাঁপিয়ে সেই ভিডিও এখন ইউটিউবে ভাইরাল। রাতারাতি মহাতারকা বনে গেছেন প্রিয়া।

ইন্টারনেটে রাতারাতি সেনসেশন তৈরি করা প্রিয়ার আখির নাচনে এখন মাতোয়ার আট থেকে আশি। তবে গানের কথা নিয়ে অভিযোগ থাকলেও প্রিয়ার চাহনি নিয়ে কোনোরকম অভিযোগ কিন্তু ওঠেনি। তাই লাখ লাখ হৃদয় জিতেও ‘পদ্মাবতে’র পথ ধরেই বিতর্কের চূড়ায় উঠছে লুলুর ‘ওরু আদার লাভ’। যদিও বিতর্কে পাত্তা দিতে রাজি নন পরিচালক লুলু।

তাঁর স্পষ্ট দাবি, ওই গানে কোনো ভাবেই মুসলিম ভাবাবেগে আঘাত দেওয়া হয়নি। আদ্যপান্ত প্রেমের অনুষঙ্গে লেখা গানের কথা। তাছাড়া ১৯৭০ সাল থেকেই এই গানের জনপ্রিয়তা রয়েছে কেরলে। তাই কোনোভাবেই ইউটিউবে থেকে গানটি সরিয়ে নেওয়া হচ্ছে না।

লুলুর এহেন ব্যাখ্যার পরে দুরকমের পন্থা নিয়েছে ফলকনুমা পুলিশ। ভারতীয় দণ্ডবিধির ১৬০ ধারায় ফৌজদারি মামালা রুজু হয়েছে লুলুর বিরুদ্ধে। নোটিসে উল্লেখ করা হয়েছে, ১৫ দিনের মধ্যে সংশ্লিষ্ট গান কেন ছবিতে থাকবে তার ব্যাখ্যা দেবেন পরিচালক ওমর লুলু। সেই ব্যাখ্যা যদি কোর্টের কাছে সন্তোষজনক না হয় তাহলে ভারতীয় দণ্ডবিধির ৪১ ধারার আওতায় নতুন মামলা রুজু হবে ওমরের বিরুদ্ধে। এখানে অভিযুক্ত হিসেবেই মানা হবে লুলুকে।

তবে এই আইনি প্রক্রিয়া শুরুর আগে ১৬০ ধারার ফৌজদারি মামলাটি বন্ধ করে দিতে হবে। এদিকে ধর্মীয় ভাবাবেগে আঘাত দেওয়ার অভিযোগে ভারতীয় দণ্ডবিধির ১৯৫ ধারার আওতায় আরও একটি মামালা রুজু হয়েছে লুলুর বিরদ্ধে। সুনির্দিষ্ট অভিযোগের ভিত্তিতে মামলাটি করেছে ফলকনুমা পুলিশ।

এসএইচ-১৭/১৯/০২ (বিনোদন ডেস্ক)

ছেলেকে মানুষ না করতে পারলে আত্মহত্যা করবেন অপু?

ঢালিউডের অভিনেতা শাকিব খান ও অপু বিশ্বাসের বিচ্ছেদ নিয়ে আলোচনা-সমালোচনার কম হয়নি। যার চূড়ান্ত পরিণতি পাবে আগামী ২২ ফেব্রুয়ারি। সংসারের ভাঙন নিয়ে শাকিব-অপু পরস্পরকে দোষারোপ করেছেন।

এদিকে অপু বিশ্বাস এক গণমাধ্যমের সঙ্গে সাক্ষাৎকারে তার সন্তান জয়কে মানুষ করতে না পারলে আত্মহত্যা করবেন বলে জানান।

অপু বিশ্বাস বলেন, অনেক কিছুর স্বপ্ন এখনো দেখিনি। তবে এরকম ইচ্ছে আছে আল্লাহ যেন আমাকে সেই তৌফিক দান করেন, আমি যেন আমার সন্তানকে মানুষের মতো মানুষ করতে পারি। যে মানুষটা আমার শ্বশুর-শাশুড়ি শাকিবকে করতে পারেননি।

আরও খবর : দীপিকা-ক্যাটরিনাকে নিজের বায়োডেটা কেন দিলেন বিগ বি?

আমি যদি আমার বাচ্চাকে সে রকম মানুষ না করতে পারি আল্লাহ যেন আমাকে ওই দিনই পৃথিবী থেকে উঠিয়ে নেন। আমি একটি কমিটমেন্ট করেছিলাম, তা রাখতে পারিনি, আল্লাহ যেন আমাকে উঠিয়ে নেন। না হলে আমি নিজেই আত্মহত্যা করব। কারণ, আমি আমার ছেলেকে মানুষ করতে পারিনি।’

শাকিবকে নিয়ে অপু বলেন, ‘আমার আর উপায় ছিল না। আমি অনেকভাবে শাকিবকে বোঝানোর চেষ্টা করেছি। বাচ্চার কথা বলেছি। শাকিব কোনো কিছুই মানতে রাজি ছিল না। তখন আমার নিজের কোনো স্বীকৃতি ছিল না। আমার সন্তানের স্বীকৃতি ছিল না। একজন মা হিসেবে এর চেয়ে বেদনার আর কী হতে পারে। আমার কাছে উপায় ছিল না বলেই আমি গণমাধ্যমে এসে মুখ খুলেছি। এটাকে ভিন্নখাতে প্রবাহিত করার কোনো সুযোগ নেই।’

উল্লেখ্য, ২০০৮ সালের ১৮ এপ্রিল শাকিব খান ও অপু বিশ্বাসের বিয়ে হয়। বিয়ের ব্যাপারটি কঠোর গোপনীয়তার মধ্যে রেখে তাঁরা দুজন সমানতালে সিনেমার শুটিং অব্যাহত রাখেন। ২০১৭ সালের ১০ এপ্রিল বিকেলে একটি টেলিভিশন চ্যানেলে ছয় মাস বয়সের ছেলে আব্রামকে সঙ্গে নিয়ে উপস্থিত হন অপু। সেদিন অপু বলেন, ‘আমি শাকিবের স্ত্রী, আমাদের ছেলে আছে।’

বিয়ের খবর জনসমক্ষে আসার পর দুজনের সম্পর্কের টানাপোড়েন তৈরি হয়। পরিস্থিতি এমন অবস্থায় পৌঁছায় যে শাকিব খান ও অপু বিশ্বাস নিজেদের মধ্যে মুখ দেখাদেখি বন্ধ করে দেন। শুধু ছেলে আব্রামের কারণে মাঝেমধ্যে দেখা হলেও কথা হয়নি দুজনের।

এরপর গত বছর ২২ নভেম্বর অপু বিশ্বাসের ঢাকার বাসা ও বগুড়ার ঠিকানায় রেজিস্ট্রি করা হলফনামা আকারে তালাকনামা পাঠানো হয়। যার প্রেক্ষিতে আগামী ২২ ফেব্রুয়ারি শেষ হচ্ছে সব সম্পর্ক।

এসএইচ-১৩/১৯/০২ (বিনোদন ডেস্ক, তথ্যসূত্র: একুশে টিভি)

‘মুসলমান’ শব্দ নিয়ে আপত্তি ভারতীয় সেন্সর বোর্ডের

দুই বাংলার জনপ্রিয় শিল্পীদের নিয়ে তৈরি হয়েছে ‘চিরদিনের এক অন্য প্রেমের গল্প’ ছবিটি। তবে পূর্ণদৈর্ঘ্য এই ছবিটিতে ব্যবহৃত ‘মুসলমান’ শব্দটিকে নিয়ে সমস্যা দেখিয়েছে ভারতীয় সেন্সর বোর্ড। ছবিতে ব্যবহৃত ‘মুসলমান’ মিউট (মৌন) করে দিলেই মিলবে ছবি মুক্তির ছাড়পত্র।

ছবিটির পরিচালকে এমটাই জানিয়েছে ভারতের সেন্ট্রাল বোর্ড অফ ফিল্ম সার্টিফিকেশন (সিবিএফসি)। ছবিটিতে মোট চার বার ‘মুসলমান’ শব্দটি ব্যবহার করা হয়েছে। ছবিটি পরীক্ষার পর সেন্সর বোর্ডের পক্ষ থেকে পরিচালক রঞ্জন চৌধুরীকে পাঠানো একটি তালিকায় নয়টি অদলবদলের কথা জানানো হয়েছে।

পরিচালক রঞ্জন চৌধুরী জানান, ‘তালিকায় যে কয়টি পরিবর্তনের কথা বলা হয়েছে তার মধ্যে পঞ্চম-টি খুবই শকিং। সেখানে ‘মুসলমান’ শব্দটি যতবার রয়েছে সেটি মিউট করে দেওয়ার কথা বলা হয়েছে। যেখানে ‘মুসলমান’ শব্দটি ব্যবহার করা হয়েছে তার সময়ও উল্লেখ করে দেওয়া হয়েছে।

আরও খবর : হাসপাতালে ভর্তি অমিতাভ বচ্চন

তালিকা অনুযায়ী এই শব্দ ব্যবহারে সেন্সর বোর্ডের ২ (১২) গাইড লাইন লঙ্ঘন করা হয়েছে, যেখানে সিনেমায় ব্যবহৃত ওই শব্দটি বা সেই সময়কার দৃশ্যটির মাধ্যমে জাতিগত, ধর্মীয় বা অন্য গোষ্ঠীকে অবজ্ঞা করা হচ্ছে-যেটা কোনমতেই ছবিতে উপস্থাপন করা উচিত নয়’।

যদিও এব্যাপারে সিবিএফসি’এর আঞ্চলিক ডিরেক্টর সম্রাট বন্দোপাধ্যায় কোন মন্তব্য করতে চাননি। তবে চিত্র সমালোচকরা বলছেন ‘মুসলমান’ শব্দটি বাংলা সিনেমার ক্ষেত্রে নতুন নয়। ২০০৬ সালে সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়, নন্দিতা দাস অভিনীত গৌতম ঘোষের ‘পদক্ষেপ’ ছবিতে ‘মুসলমান’ শব্দটি ব্যবহৃত হয়েছিল। সেখানে সৌমিত্র নিজেই ‘ওই মুসলমান ছেলেটি’ বাক্যটি ব্যবহার করেছিলেন।

ছবিটিতে বাংলাদেশের নায়িকা শম্পা হাসনাইনের বিপরীতে রয়েছেন ওপারের নায়ক সমদর্শী দত্ত। সঙ্গে আরো রয়েছেন শ্রীলা মজুমদার, বিশ্বজিৎ চক্রবর্তী, শুভাশীষ মুখার্জি, সৌমি ঘোষসহ অন্যরা।

ভিন্ন ধর্মের দুই ছেলে-মেয়ের প্রেমের কাহিনী নিয়েই তৈরি হয়েছে ছবিটি। এতে হিন্দু মেয়ের চরিত্রে অভিনয় করেছেন শম্পা। স্পষ্টবাদী ও চঞ্চল প্রকৃতির এই মেয়েটির প্রেম হয়েছে একটি মুসলিম ছেলের সাথে।

এদিকে এ প্রসঙ্গে বাংলাদেশ প্রতিদিনকে শম্পা বলেন, কয়েকদিন ধরে শুনছিলাম ছবিটা নিয়ে কিছু সমস্যা হচ্ছে। আজ ভারতীয় বেশ কয়েকটি দৈনিকে খবর দেখলাম এই ইস্যু নিয়ে। আশা করি এ সমস্যাও শিগগিরই সমাধান হয়ে যাবে।

এসএইচ-১৯/১০/০২ (বিনোদন ডেস্ক)

অপুর দাবি : শাকিব বলেছিল ডির্ভোস দিবে, দিয়েছে

শাকিব আমাকে বলেছিল জয় যদি পৃথিবীতে আসে, তাহলে আমাকে ডিভোর্স দিয়ে দিবে। কিন্তু আমি শাকিবের সে কথা শুনিনি। যার কারণে আজ তা-ই ঘটতে যাচ্ছে ’ কথা গুলো বলছিলেন জনপ্রিয় নায়িকা অপু বিশ্বাস।

পারিবারিক নানা ঝামেলা শেষে ফের নতুন উদ্যমে চলচ্চিত্রে ফিরছেন অপু। তার এই চলচ্চিত্রে ফেরা আর ব্যক্তিগত জীবনের বিভিন্ন দিক নিয়ে কথা বলেন এই নায়িকার।

আলাপচারিতার শুরুতেই নতুন চলচ্চিত্র নিয়ে অপু বিশ্বাস বলেন, ‘কাজই জীবন। ডাক্তার কিংবা ইঞ্জিনিয়ারিং নিয়ে পড়াশোনা করিনি বা এখন সম্ভব না ব্যাংকে চাকরি করা। অভিনয় আমার ভালোবাসা। আর তাই অভিনয় দিয়েই আবারো সামনে এগিয়ে যেতে চাই। মোট কথা কাজের বিকল্প নাই।’

আরও খবর : যৌন হেনস্তা করেছিলেন জিতেন্দ্র?

নতুন চলচ্চিত্র ‘শ্বশুর বাড়ি জিন্দাবাদ’ নিয়ে অপু বলেন, ‘ছবিটির গল্প বেশ পছন্দ হয়েছে তাই চুক্তিবদ্ধ হয়েছি। পাশাপাশি প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানও আমার পছন্দের। শুধু ছবি করলেই হবে না মানের বিষয়টিও মাথায় রাখতে হবে। বর্তমানে বাংলাদেশে যে সব ভালো প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান আছে তাদের মাঝে আমার পছন্দের একটি আরটিভি। তাই সব দিক বিবেচনা করেই ছবিটিতে কাজ করতে যাচ্ছি।

কথার প্রসঙ্গে একমাত্র সন্তান আব্রামকে নিয়ে কথা শুরু হলে হাসতে হাসতে অপু বলেন, ‘আব্রামের বয়স এখন ১৭ মাস। একটু-আধটু হাঁটতে শিখে গেছে। তাই আগের মতো কোথাও শুয়ে কিংবা বসে সময় কাটাতে ভালো লাগে না তার। হাঁটাহাঁটি কিংবা দৌড়াতেই পছন্দ করে সে। শুধু তাই পছন্দ কিংবা অপছন্দের খেলাও ঠিক করে ফেলেছে আব্রাম।’

আমি এখন আব্রাম’র বাবা, আমি এখন ওর মা উল্লেখ করে অপু বলেন, ‘আব্রামকে পৃথিবীতে আনাতে আমার অনেক যুদ্ধ করতে হয়েছে। আব্রাম যখন আমার পেটে তখন আমাকে শাকিব অনেক বিধি নিষেধ দিয়ে ছিলো। বলে ছিলো আব্রাম পৃথিবীতে আসালে সেই দিনই আমাদের সম্পর্কের ইতি হবে। তাই হচ্ছে। কিন্তু আমি তো মা, আমি শাকিবের কথা মানতে পারিনি। তিন মাস ধরে বাবার মুখ দেখেনি আব্রাম। অনেক চড়াই উৎরাই এরপর আব্রাম আজ পৃথিবীর আলোর মুখ দেখেছে। আর তাই জয়ই এখন আমার সব। ওর জন্যেই এখান আবার আমার নতুন করে লড়াই করতে হবে।

এদিকে শাকিব-অপুর সমস্যা সমাধানের জন্য গত ১৫ জানুয়ারি সকাল ১০টায় দুই পক্ষকেই ডিএনসিসি অঞ্চল-৩-এর অধীন মহাখালী কার্যালয়ে থাকতে বলা হয়েছিল। সেদিন অপু উপস্থিত থাকলেও ছিলেন না শাকিব খান। তবে শাকিবের পক্ষ থেকে তার আইনজিবী জানান শাকিব খান তার সিদ্ধান্তে অটল।

সেদিন শাকিব খান না আসায় পরবর্তীতে সালিশের নতুন তারিখ ধার্য করা হয় ১২ ফেব্রুয়ারি। তবে বর্তমানে শাকিব খান ব্যস্ত আছেন ‘সুপার হিরো’ চলচ্চিত্রের শুটিং করতে দেশের বাইরে। তাহলে কি এবারো সালিশে আসছেন না শাকিব খান?

উল্লেখ্য, ২০০৬ সালে পরিচালক এফ আই মানিক পরিচালিত ‘কোটি টাকার কাবিন’ ছবিতে নায়িকা হিসেবে শাকিব খানের বিপরীতে অভিনয় করেন অপু। সেই বছর থেকে ২০১৭ সাল পর্যন্ত এই জুটি একাধারে ৭০টির মতো ছবিতে অভিনয় করেন। একসঙ্গে কাজ করতে গিয়ে এক সময় প্রেমের সম্পর্ক হয় তাদের। ২০০৮ সালের ১৮ এপ্রিল গোপনে বিয়ে করেন এই জুটি।

এসএইচ-১২/১০/০২ (বিনোদন ডেস্ক, বিডি২৪লাইভ)

হুমায়ুন ফরিদী, ইলিয়াস কাঞ্চন একুশে পদক পাচ্ছেন

সমাজসেবায় অনন্য ভূমিকা পালন করার জন্য অভিনেতা ইলিয়াস কাঞ্চন ও কীর্তিমান অভিনয় শিল্পী হিসেবে হুমায়ূন ফরিদীসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ অবদানের স্বীকৃতি স্বরুপ ২১ জন বিশিষ্ট জনকে ২০১৮ সালের একুশে পদক প্রদান করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার।

বৃহস্পতিবার সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয় থেকে যারা একুশে পদক পেতে যাচ্ছেন তাদের নাম ঘোষণা করা হয়।

এসময় জানানো হয়, আগামী ২০ ফেব্রুয়ারি ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আনুষ্ঠানিকভাবে পদকপ্রাপ্তদের হাতে একুশে পদক তুলে দিবেন।

আরও খবর : বিকিনি পরে সৈকতে উষ্ণতা ছড়ালেন পূজা

যে ২১ জন বিশিষ্ট জনার একুশে পদক পেতে যাচ্ছেন তারা হলেন- অধ্যাপক সৈয়দ মনজুরুল ইসলাম, অভিনেতা হুমায়ূন ফরিদী (মরণোত্তর) এবং ইলিয়াস কাঞ্চন, ভাষা আন্দোলনে আ. জা. ম. তকীয়ুল্লাহ (মরণোত্তর) ও অধ্যাপক মির্জা মাজহারুল ইসলাম। শিল্পকলায় সঙ্গীত বিভাগে শেখ সাদী খান, সুজেয় শ্যাম, ইন্দ্র মোহন রাজবংশী, মো. খুরশীদ আলম, মতিউল হক খান, শিল্পকলার নৃত্য বিভাগে বেগম মীনু হক (মীনু বিল্লাহ), নাটকে নিখিল সেন (নিখিল কুমার সেনগুপ্ত), চারুকলায় কালিদাস কর্মকার, আলোকচিত্রে গোলাম মুস্তাফা।

এছাড়া সাংবাদিকতায় একুশে পদকের জন্য মনোনীত হয়েছেন রণেশ মৈত্র। গবেষণায় মনোনীত হয়েছেন ভাষা সৈনিক প্রফেসর জুলেখা হক, অর্থনীতিতে ড. মিইনুল ইসলাম, ভাষা ও সাহিত্যে সৈয়দ মনজুরুল ইসলাম, সাইফুল ইসলাম খান (কবি হায়াৎ সাইফ), সুব্রত বড়ুয়া, রবিউল হুসাইন ও মরহুম খালেকদাদ চৌধুরী।

এসএইচ-১৩/০৯/০২ (বিনোদন ডেস্ক)