মুসলিমদের খাবার-অর্থ-জামাকাপড় দান ভালো লাগে













মুসলিম ধর্মে শুধু ধনীদের গরিবদেরকে খাবার, অর্থ ও জামাকাপড় দানের বিষয়টি আমার ভালো লাগে বলে জানিয়েছেন বিতর্কিত লেখিকা তসলিমা নাসরিন।
গত মঙ্গলবার নিজের ভেরিফায়েড টুইটার অ্যাকাউন্টে দেয়া পোস্টে একথা জানান তিনি।
তসলিমা নাসরিন আরও লিখেছেন, কিন্তু তারা(ধনী মুসলিমরা) এটা করে শুধু জান্নাতে 

যাওয়ার জন্য। দারিদ্র্য দূর করার জন্য তারা এটা করে না।

কিছুদিনের মধ্যেই শুরু হতে যাচ্ছে রমজান মাস। সেই উপলক্ষে বিশ্বজুড়ে শুরু হয়ে গেছে প্রস্তুতি। এই সময়ে অনেক দুঃস্থ পরিবারের পাশে দাঁড়ায় মুসলিম সম্প্রদায়ের উচ্চবিত্ত মানুষেরা। এটাই নিয়ম ইসলামের। রমজান মাস উপলক্ষেই হয়ত এমন পোস্ট দিয়েছেন তসলিমা নাসরিন।
ময়মনসিংহে ১৯৬২ সালের ২৫ আগস্ট জন্ম নেয়া তসলিমা নাসরিন বিংশ শতকের আশির দশকে একজন উদীয়মান কবি হিসেবে সাহিত্যজগতে প্রবেশ করেন। এই শতকের শেষের দিকে নারীবাদী ও ধর্মীয় সমালোচনামূলক রচনার কারণে আন্তর্জাতিক খ্যাতি লাভের পাশাপাশি বিতর্কিত হন তিনি।
তিনি তার রচনা ও ভাষণের মাধ্যমে লিঙ্গসমতা, মুক্তচিন্তা, ধর্মনিরপেক্ষ মানবতাবাদ ও মানবাধিকারের প্রচার করায় ধর্মীয় মৌলবাদী গোষ্ঠীদের রোষানলে পড়েন। হত্যার হুমকি পাওয়ায় ১৯৯৪ খ্রিস্টাব্দে বাংলাদেশ ত্যাগ করে বিশ্বের বিভিন্ন দেশে বসবাস করতে বাধ্য হন। তিনি কিছুকাল যুক্তরাষ্ট্রে বসবাস করেন। বর্তমানে ভারত সরকার কর্তৃক অজ্ঞাতবাসে অবস্থানের সুযোগ পেয়ে সেখানে বসবাস করছেন তিনি।




বিচিত্র এক গাড়ি! জেনে নিন বিস্তারিত













সুপার শপে কেনাকাটার জন্য বেশিরভাগ মানুষ শপিং কার্ট বেছে নেন। এক সঙ্গে অনেক জিনিসপত্র কেনার পরে সেগুলো সঙ্গে নিয়ে বেড়ানোর জন্য দারুণ কাজের জিনিস এই শপিং কার্ট। মাঝে মধ্যে সুপার শপে কেনাকাটা করতে এসে কোনো কোনো মা ছোট্ট বাচ্চাটিকে শপিং কার্টে তুলে নিয়ে স্বাচ্ছন্দ্যে কেনাকাটা করেন।

তবে এদিন অস্ট্রেলিয়াতে শপিং কার্টের অন্যরকম ব্যবহার দেখা গেল। অস্ট্রেলিয়ার অ্যাডিলেডে এক ব্যক্তি শপিং কার্টকে বানিয়ে ফেলেছেন গাড়ি! আর সেই গাড়িতে নিজেই চড়ে রাস্তায় বেরিয়ে পড়েন।

ভিডিওতে দেখা যায়, ঐ ব্যক্তি বিচিত্র ঐ গাড়িতে উঠে দিব্যি ঘুরে বেড়াচ্ছেন। শপিং কার্টটিকে গাড়ি হিসেবে ব্যবহারের জন্য তিনি এতে যোগ করেন একটি মোটর এবং স্টিয়ারিং। গাড়িতে করে রাস্তায় ঘোরার সময় কৌতূহলী পথচারীদের অনেকেই তা ক্যামেরাবন্দি করেছেন। এক নারী পথচারী ভিডিওটি সোশাল মিডিয়ায় শেয়ার করার পর তা ভাইরাল হয়ে যায়।




‘আমি সিনেমার সুপারস্টার!’













স্টার-সুপারস্টার তো দর্শক তৈরী করে। কোনো তারকা নিজ থেকে কখনো ইচ্ছা মাফিক নিজেকে সুপারস্টার দাবী করতে পারনে না। তাহলে চিত্রনায়ক মামনুন হাসান ইমন নিজেকে এমন দাবী করে বসলেন? না ব্যাপারটা আসলে এমন না।

তাহলে কি সে কারণ যার জন্য নায়ক ইমন নিজেকে সুপারস্টার বলে দাবী করলেন? সম্প্রতি

শাহরিয়াজ নাজিম জয়ের চিত্রনাট্য, সংলাপ ও পরিচালনায় শুরু হয়েছে ‘পাপ কাহিনী’ চলচ্চিত্রের শুটিং। সেখানেই চিত্রনায়ক ইমন একজন চলচ্চিত্রের সুপারস্টারের ভুমিকায় অভিনয় করছেন।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, “গত বুধবার থেকে শুরু হওয়া আমার নতুন চলচ্চিত্র ‘পাপ কাহিনী’ -তে আমি একজন সিনেমার স্টার চরিত্রে অভিনয় করছি। এ সিনেমার সব চরিত্র নায়ক, নায়িকা, প্রযোজক, পরিচালক ও সঞ্চালক আছে। এ যেনো সিনেমার ভিতরেই একটি সিনেমার কাহিনী।”

এদিকে নায়কের বিপরীতে অভিনয় করছেন তমা মির্জা ও সোহানা সাবা। তাদের নিয়ে এই অভিনেতা বলেন, ‘তারা নিঃসন্দেহ খুব ভালো মানের অভিনেত্রী, তাদের সাথে খুব ভালোই লাগছে কাজ করে। আর জয় ভাইয়ের পরিচালনায় প্রথমবারের মত কাজ করছি, তিনি খুব ভালো ভাবে কাজ বুঝিয়ে দিচ্ছেন এবং প্রত্যেকের কাছ থেকেও ভালো ভাবে কাজটা আদায় করে নিচ্ছেন।’
‘পাপ কাহিনী’ ছবির শুটিংয়ের জন্য চলতি মাসের ৮ তারিখ কক্সবাজার যাবে ছবির ইউনিট।

বর্তমানে ইমন কলকাতার একটি ফিচার ফিল্ম ‘সিনেমার পর্দার সব চরিত্র কাল্পনিক’ এবং ব্যস্ত রয়েছেন ‘সাহসী যোদ্ধা’ সিনেমাটি নিয়ে। মুক্তির অপেক্ষায় রয়েছে ‘কিলার’, ‘সমাধান’, ‘আমার সিদ্ধান্ত’ শিরোনামের ছবিগুলো।

বড় পর্দার পাশাপাশি ছোট পর্দায় তার সমান ব্যস্ততা চলছে। একাধারে তিনি চলচ্চিত্র, নাটক ও বিজ্ঞাপন নিয়ে ব্যস্ত সময় পার করছেন।




বলিউডের এই অভিনেত্রীর বিরুদ্ধে জালিয়াতির অভিযোগ আনা হয়েছে













বলিউড সিনেমা ‘হেইট স্টোরি টু’ অভিনেত্রী সুরভিন চাওলা ও তার স্বামীর বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের হয়েছে থানায়। অভিযোগ রয়েছে তারা ৪০ লাখ রুপি নিয়ে জালিয়াতি করেছেন। এবিপি আনন্দ জানায়, ‘নীল-বাট্টে সানাটা’ ছবির সহ প্রযোজক পঙ্কজ গুপ্ত ও তার বাবা সতপল গুপ্ত এফআইআরটি দায়ের করেন সুরভিন ও তার স্বামীর বিরুদ্ধে।

সতপল গুপ্ত জানান, ২০১৪ সালে ‘নীল বাট্টে সানাটা’ ছবিটি সুরভিন তার স্বামীর সঙ্গে মিলে জার পিকচারের সঙ্গে সহ-প্রযোজনা করছিলেন। সেই সময়ই পঙ্কজকে বলেন, তারা যদি ছবিতে এক কোটি রুপি ঢালেন, তাহলে ভালো রিটার্ন পাবেন।

তখন পঙ্কজ ৫১ লাখ দিতে রাজি হন। কিন্তু টাকা লেনদেনের সময় কোনো এক অজ্ঞাতকারণে ৪০ লাখ লেনদেন হয়, কিন্তু ১১ লাখ রুপি হয়নি।

এরপর ছবিটি তৈরি হয় এবং সুরভিনের সঙ্গে পঙ্কজের যোগাযোগও থাকে। কিন্তু আচমকা ছবি মুক্তির পর সুরভিন ও তার স্বামীর মনোভাব সম্পূর্ণ বদলে যায়। পরে তথ্য যাচাই করে পঙ্কজ দেখেন, ৪০ লাখ রুপি সুরভিনের স্বামীর নামে ছবির অ্যাকাউন্টে জমা পড়েছে। এরপরই তারা জালিয়াতির মামলা করার সিদ্ধান্ত নেন।




তরুণী থেকে দায়িত্বপরায়ণ মহিলায় পরিণত হয়েছি













'স্টুডেন্ট অব দ্য ইয়ার' দিয়ে ২০১২ সালে বলিউডে ক্যারিয়ার শুরু আলিয়া ভাটের। পরিবারের জোর থাকলেও খুব অল্প সময়ে অভিনয়টা দিয়েই বলিউডে পোক্ত আসন গড়েছেন তিনি। সামনে তার 'রাজি' সিনেমাটি মুক্তি পাচ্ছে। এর দীর্ঘ সময়ে কী পরির্তন এসেছে জানতে চাইলে আলিয়া বলেন, আমি আগের চেয়ে অনেক পরিণত। মা আমাকে বলেছে, আমি তরুণী

থেকে দায়িত্বপরায়ণ মহিলায় পরিণত হয়েছি। কিছু বছর আগেও আমি ভীষণ বিশৃঙ্খল ছিলাম। এখন অনেক সামলে নিয়েছি।

'কলঙ্ক' ছবিতে মাধুরীর দীক্ষিতের সঙ্গে দেখা যাবে আলিয়াকে। মাধুরীকে নিয়ে আলিয়া বলেন, মাধুরী এখনও এত সুন্দরী যে, চোখ ফেরানো যায় না। সেটে মাধুরী দীক্ষিতকে দেখে আমি পাথর হয়ে গিয়েছিলাম, দু’দিন শুটিং করার পর আড়ষ্টতা একটু কেটেছে। কোনও দিন ভাবিনি, একসঙ্গে ক্যামেরার সামনে কাজ করব।

পর্দার বাইরে নিজের জীবন নিয়ে আলিয়া বলেন, ২৫ বছরের একটা মেয়ের যেমন হওয়া উচিত আমি তেমনই। ছবির কোনও চরিত্র নিয়ে আমি বাড়িতে ফিরি না। আমি খুবই সাধারণ। ক্যামেরার বাইরে অভিনয় করলে তো বোর হয়ে যাব!




চাকরির নামে থানায় ডেকে তরুণীকে ধ’র্ষণ, অত:পর













কাঠুয়া থেকে উন্নাও- ভারতের দুই প্রান্তের এই দুই ধ’র্ষণের ঘটনার পর দেশটিতে প্রতিবাদের ঝড় উঠে। সেই রেশ কাটতে না কাটতে ধ’র্ষণ রুখতে যাদের ভূমিকা সবচেয়ে বেশি, সেই পুলিশকেই এবার দেখা গেল ‘ভক্ষকে’র ভূমিকায়। ধ’র্ষণ রুখে নয়, বরং থানা চত্বরে তরুণীকে ধ’র্ষণ করে সংবাদ শিরোনামে উঠে এলো পুলিশ। সম্প্রতি ভারতের অাসাম রাজ্যের

কামরূপ জেলার হাজো থানার পুলিশ কোয়ার্টারে এ ঘটনা ঘটেছে।

পুলিশ সূত্রের বরাত দিয়ে ভারতীয় গণমাধ্যম সংবাদ প্রতিদিনের খবর, পুলিশ কোয়ার্টারের মধ্যে তরুণীকে ধ’র্ষণের অভিযোগে ইতোমধ্যেই পুলিশ অফিসার বিনদকুমার দাসকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

কামরূপ জেলা পুলিশ সুপার জানিয়েছেন, আটক পুলিশ অফিসারের বিরুদ্ধে কড়া পদক্ষেপ নেবে পুলিশ। ঘটনার তদন্ত প্রক্রিয়া শুরু করার জন্য ইতিমধ্যেই নির্যাতিতার মেডিক্যাল টেস্ট করিয়েছে পুলিশ। মেডিক্যাল রিপোর্টে প্রাথমিকভাবে ধর্ষণের প্রমাণ মিলেছে বলে জানা গেছে।

এদিকে, পুলিশের অফিসারের বিরুদ্ধে ধর্ষণের মতো গুরুত্বপূর্ণ অভিযোগ উঠতেই অাসাম সরকারের পক্ষ থেকে এই ঘটনার তীব্র নিন্দা জানানো হয়েছে। পুলিশ অফিসারের বিরুদ্ধে কড়া ধারায় মামলা দায়ের করারও আর্জি জানানো হয়েছে।

অভিযোগ, পুলিশে চাকরি দেওয়ার নামে সম্প্রতি ওই তরুণীকে নিজের কোয়ার্টারে ডাকে অভিযুক্ত ওই পুলিশ অফিসার। বন্ধ ঘরে ওই তরুণীকে লাগাতার ধর্ষণ করা হয়। এদিনের এই ঘটনায় অসুস্থ হয়ে পড়েন ওই তরুণী। চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে ভর্তির পরই গোটা ঘটনা জানাজানি হয়। অভিযুক্ত ওই পুলিশ অফিসারের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করেন ওই নির্যাতিতা। পরে ঘটনার তদন্তে নামে পুলিশ।




প্রভাসের জন্য দুবাই পাড়ি দিলেন আনুশকা













'বাহুবলী' ছবির পর কয়েক হাজার বিয়ের প্রস্তাব পেয়েছেন সুপারস্টার প্রভাস। এর মধ্যে বাহুবলী নায়িকা আনুশকা শেঠিকে বিয়ের কথাও বেশ জোরেশোরে শোনা যায়। যদিও এখন পর্যন্ত এসব খবর গুজব বলে জানা গেছে। তবে তারা যতই নিজেদের শুধু ভালো বন্ধু বলে দাবি করুন না কেন সাম্প্রতিক ঘটনা কিন্তু বলছে অন্য কথা।

সম্প্রতি, আবুধাবিতে 'সাহো' শ্যুটিংয়ে বাইকে চড়া অবস্থায় প্রভাসের ছবি ভাইরাল হয়েছে। শোনা যাচ্ছে, বাহুবলী তারকা নাকি এই ছবির সমস্ত ভয়ংকর স্টান্টই জীবনের ঝুঁকি নিয়ে নিজেই করছেন। তার জন্য কোনো রকম বডি ডাবল নিতে নারাজ প্রভাস।

ভারতীয় গণমাধ্যমে খবর, প্রভাসের এই সিদ্ধান্তের কথা শুনেই নাকি দুবাইতে 'সাহো'র শ্যুটিং স্পটে হাজির হয়েছিলেন অনুশকা শেঠি। বিশেষ বন্ধু প্রভাসকে তার পরামর্শ, ''কোনোভাবেই তিনি যেন জীবনের ঝুঁকি নিয়ে স্টান্ট না করেন। প্রভাসের কোনোরকম ক্ষতি তিনি মানতে পারবেন না।''

আর প্রভাসের প্রতি অানুশকার এমন মাথাব্যথা দেখে যে কারোরই প্রভাস-অানুশকার মধ্যে বিশেষ রসায়নের গন্ধ পাওয়া স্বাভাবিক নয় কি?