শুরু হচ্ছে শুভর ‘বালিঘর’













বাংলা চলচ্চিত্রের জনপ্রিয় অভিনেতা আরিফিন শুভ। খুব অল্প সময়েই যিনি ইন্ডাস্ট্রিতে নিজের পায়ের তলার জমি পাকা করে নিয়েছেন। অভিনয় করছেন একের পর এক ছবিতে। পূর্ণদৈর্ঘ্য প্রেম কাহিনি, ভালোবাসা জিন্দাবাদ, তাঁরকাটা, কিস্তিমাত, মুসাফির, ছুঁয়ে দিলে মন, ও ঢাকা অ্যাটাক-এর মতো ছবিগুলো দিয়ে তিনি দর্শক-সমালোচকদের নজর কেড়েছেন। ছবিগুলোতে

তার অভিনয় ব্যাপকভাবে প্রশংসিত হয়েছে।

শুভর পরবর্তী ছবি ‘বালিঘর’। কলকাতার চলচ্চিত্র নির্মাতা অরিন্দম শীল পরিচালিত এ ছবির শুটিং শুরু হওয়ার কথা ছিল চলতি বছরের মার্চ থেকে। কিন্তু হুট করেই শুভ নায়ক আলমগীর পরিচালিত ‘একটি সিনেমার গল্প’ ছবির কাজ নিয়ে ব্যস্ত হয়ে পড়েন। যার কারণে পিছিয়ে যায় ‘বালিঘর’-এর শুটিং। গত ১৩ এপ্রিল মুক্তি পায় শুভর ‘একটি সিনেমার গল্প’ ছবিটি।

সম্প্রতি একটি সাক্ষাৎকারে শুভ জানালেন, নায়ক আলমগীরের ‘একটি সিনেমার গল্প’ মুক্তি পাওয়ায় এখন তিনি চাপমুক্ত। কাজেই ১৯ অথবা ২০ আগস্ট থেকে শুরু হবে ‘বালিঘর’ ছবির শুটিং। প্রথম ধাপের শুটিং হবে বাংলাদেশের কক্সবাজারে। এরপর দ্বিতীয় ধাপের শুটিং শুরু হবে কলকাতায়।
চলতি বছরের জানুয়ারিতে এই ছবির কাজে ঢাকায় এসেছিলেন পরিচালক অরিন্দম শীল। পরে ২০ জানুয়ারি রাজধানীর একটি হোটেলে সংবাদ সম্মেলন করেন তিনি। সেখানে ছবি সম্পর্কে বিভিন্ন আলোচনা করেন শীল। ‘বালিঘর’-এ আরিফিন শুভকে দেখা যাবে একজন শেফের চরিত্রে। একটি বিশেষ চরিত্রে হাজির হবে দেশের আরেক জনপ্রিয় তারকা নুসরাত ইমরোজ তিশা।

অরিন্দম শীলের ‘বালিঘর’ নির্মিত হবে ভারত ও বাংলাদেশের যৌথ প্রযোজনায়। প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান দুটি হচ্ছে বাংলাদেশের বেঙ্গল ক্রিয়েশনস এবং ভারতের নাথিং বিয়ন্ড সিনেমা। চার বন্ধুর গল্প থাকবে এই ছবিতে। কলকাতার কথাসাহিত্যিক সুচিত্রা ভট্টাচার্যের ‘ঢেউ আসে ঢেউ যায়’উপন্যাস অবলম্বনে নির্মিত হচ্ছে এটি। ছবিতে আরও রয়েছেন কলকাতার আবির চ্যাটার্জি, রাহুল ব্যানার্জি, অনির্বাণ ভট্টাচার্জ ও পার্নো মিত্র।




তবে কি মৌনীর প্রেমে পড়েছেন সালমান?













ভাইজান খ্যাত বলিউডের জনপ্রিয় নায়ক সালমান খান এক বঙ্গ তরুর প্রেমে পড়েছেন। এই বঙ্গনারী আর কেউ নয় ছোট পর্দার জনপ্রিয় মুখ মৌনী রায়। বলিউডে এখন কান পাতলেই শোনা যাচ্ছে এমন কথাই। আবার অনেকেই বলছেন প্রেম নয়, মৌনীর সঙ্গে শুধু নাকি রোমান্স করতেই দেখা যায় সালমানকে।

সালমান খানের সঙ্গে একজন বঙ্গ সুন্দরীর নাম বেশ কিছুদিন ধরে শোনা যাচ্ছে। এর আগে মৌনীকে সালমানের সঙ্গে ছোট পর্দায় দেখা গেছে। এবার তাঁদের বড় পর্দায় দেখার সম্ভাবনার কথা শোনা যাচ্ছে।

এ কথা প্রায় নিশ্চিত, মৌনী রায় শিগগিরই বলিউডের দুনিয়ায় পা রাখছেন। অক্ষয় কুমারের ‘গোল্ড’ ছবির মধ্য দিয়ে বিটাউনে আত্মপ্রকাশ করছেন এই টেলি-সুন্দরী।

শোনা যাচ্ছে, সালমান খানের ‘দাবাং থ্রি’ ছবিতে নাকি এই অভিনেত্রী কাজ করতে চলেছেন। এই ছবিতে সাল্লু মিয়ার ‘সাবেক’ হিসাবে তাকে দেখা যাবে। ছবিতে তাদের সম্পর্ক ‘ফ্ল্যাশব্যাক’ দৃশ্য হিসেবে আসতে পারে। এমনকি পর্দায় সালমান আর মৌনীকে রীতিমতো রোমান্স করতে দেখা যাবে। তবে এ ব্যাপারে পাকাপাকি কিছু জানা যায়নি।

মৌনী রায় তার সৌন্দর্য আর গ্ল্যামারাস ছবির জন্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে খুবই জনপ্রিয়। ইনস্টাগ্রামে তাকে ৪৭ লাখ ব্যবহারকারী ফলো করেন। এখন মৌনীর ভক্তরা তার অভিনীত ‘গোল্ড’ ছবি মুক্তির অপেক্ষায় দিন গুনছেন।

এদিকে সালমান খান তার আগামী ছবি ‘রেস থ্রি’ এবং ‘ভারত’ নিয়ে ব্যস্ত। ‘দাবাং থ্রি’ ছবির কাজ শিগগিরই শুরু হবে। তবে এই ছবির প্রধান নায়িকার নাম সম্পর্কে এখনো কিছু জানা যায়নি।




‘বিগ বস’ এ সালমান খানের সঙ্গ দিতে থাকছেন ক্যাটরিনা













চলতি বছরের মাঝামাঝি সময়ে শুরু হতে যাচ্ছে ভারতের সবচেয়ে জনপ্রিয় রিয়েলিটি শো ‘বিগ বস’র ১২ তম আসর। কয়েকদিন আগে শোটি শুরু করার ঘোষণা দেয় কালারস টিভি। ইতোমধ্যে প্রতিযোগীদের অডিশন নেওয়া শুরু হয়েছে।

প্রতিবারের মতো এবারও বিগ বসের সঞ্চালনার দায়িত্বে থাকবেন সালমান খান। তবে নতুন আসরে দর্শকের জন্য নতুন চমক দেবে কর্তৃপক্ষ। শোনা যাচ্ছে এবার বলিউড ‘ভাইজান’র সঙ্গে অনুষ্ঠানটিতে সহ-সঞ্চালকের দায়িত্বে থাকবেন তারই সাবেক প্রেমিকা ক্যাটরিনা কাইফ।

বড় পর্দার এই হিট জুটিকে দর্শক এবার টিভি পর্দায় দেখতে পাবেন। সম্প্রতি ভারতীয় একটি গণমাধ্যম এমনই প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে।

সূত্র জানায়, সালমান-ক্যাটরিনা একসঙ্গে অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করবেন। বড় পর্দার পর টিভি পর্দায়ও দর্শক তাদের রসায়ন দেখতে পাবেন। ক্যাটই হবেন একমাত্র অভিনেত্রী যিনি এই অনুষ্ঠানের মাধ্যমে বলিউড ‘সুলতান’র সঙ্গে নানা রকম মজা করবেন, তাকে অনুকরণ করবেন আবার তার সঙ্গে বিভিন্ন জায়গায় ঘুরে বেড়াবেন।

এর আগে ‘টাইগার জিন্দা হ্যায়’ ছবির প্রচারণায় ‘বিগ বস’র ১১তম আসরে অতিথি হিসেবে অংশ নিয়েছিলেন ক্যাটরিনা। তখন সালমান-ক্যাট ‘সোহাগ সে সওগাত’ গানের সঙ্গে নেচে দর্শক মাতিয়েছিলেন।

‘টাইগার জিন্দা হ্যায়’ ছাড়াও ‘যুবরাজ’, ‘ম্যানে পেয়ার কিউ কিয়া’, ‘পার্টনার’ এবং ‘এক থা টাইগার’-এ জুটি বেঁধে অভিনয় করেছেন সালমান খান ও ক্যাটরিনা কাইফ।

‘ধুম থ্রি’ অভিনেত্রী বর্তমানে শাহরুখ খানের সঙ্গে ‘জিরো’ ছবির শুটিংয়ে ব্যস্ত রয়েছেন। এছাড়াও ‘থাগস অব হিন্দুস্তান’ ছবিতে অভিনয় করছেন ক্যাটরিনা। এদিকে ‘ভারত’ ছবির প্রস্তুতি নিতে লন্ডনে অবস্থান করছেন সালমান। আসন্ন ঈদে ‘রেস থ্রি’ দিয়ে আবারও পর্দা কাঁপাবেন এই সুপারস্টার।




নতুন করে জুটি বাঁধলেন নোবেল পূর্ণিমা













ফের জুটি বাঁধলেন জনপ্রিয় মডেল ও তারকা জুটি পূর্ণিমা ও নোবেল। এই দুই তারকা একসঙ্গে জুটি হয়ে অভিনয় করলেন একটি বিজ্ঞাপনে। উত্তরায় অবস্থিত একটি শপিংমলের বিজ্ঞাপন এটি। নির্দেশনা দিচ্ছেন রানা মাসুদ।

উত্তরায় শুক্রবার থেকে শুরু হয়েছে বিজ্ঞাপনটির শুটিং। বিজ্ঞাপনটিতে কাজ করা প্রসঙ্গে নোবেল বলেন, আগে থেকেই আমি বেছে বেছে কাজ করি। তার ধারাবাহিকতা এখনও রয়েছে। এখন যে বিজ্ঞাপনটিতে কাজ করছি সেটির কনসেপ্টটি ভালো লেগেছে।

পূর্ণিমা বলেন, নোবেল ভাইয়ের সঙ্গে আগেও কাজ করা হয়েছে। বিজ্ঞাপনটির গল্প ভালো। ভালো গল্প বলেই আমরা একসঙ্গে বিজ্ঞাপনটি করছি।’ বিজ্ঞাপনটি শিগগিরই দেশের সবকটি চ্যানেলে একযুগে প্রচার হবে বলে জানিয়ছেন নির্মাতা।

নোবেল উৎসবকেন্দ্রিক নাটকগুলোতে মাঝে মাঝে অভিনয় করতে দেখা যায় তাকে। দেশের শীর্ষ এক মুঠোফোন প্রতিষ্ঠানের বড় দায়িত্বও পালন করছেন। অন্যদিকে চিত্রনায়িকা পূর্ণিমা ব্যস্ত রয়েছেন উপস্থাপনা দিয়ে।




সান্ত্বনা দিতে গিয়ে ফারুকীর প্রেমে পড়েন তিশা













বাংলা চলচ্চিত্রের জনপ্রিয় দুই তারকা নুসরাত ইমরোজ তিশা ও মোস্তফা সরয়ার ফারুকী। দুজনেই যার যার ক্ষেত্রে দারুণ সফল। একজন অভিনয়ে, অন্যজন চলচ্চিত্র নির্মাণে। দীর্ঘ আট বছর একসঙ্গে পথ চলছেন এই তারকা দম্পতি। মানে তারা স্বামী-স্ত্রী। ২০১০ সালের জুলাই মাসে তিশাকে বিয়ে করেন ফারূকী। বিয়ের আগে চুটিয়ে প্রেম করেছেন জনপ্রিয় এ লাভবার্ড জুটি।

দর্শক তাদের প্রেমের খবর জানলেও তিশার সঙ্গে ফারূকীর প্রেম কীভাবে শুরু হয়েছিল সেটা অনেকের অজানা। সম্প্রতি প্রথম আলোর ‘আনন্দ’পাঠকদের জন্যই আপনার প্রশ্ন, তারকার উত্তর বিভাগ’ অনুষ্ঠানে হাজির হয়ে সেই গোপন কথা জানালেন অভিনেত্রী তিশা নিজেই।

অনুষ্ঠানে মাহফুজুর রহমান খান নামের এক দর্শক তিশাকে প্রশ্ন করেন, ‘মোস্তফা সরয়ার ফারকীর সঙ্গে প্রেম করে বিয়ে, নাকি প্রেম ছাড়া বিয়ে? যদি প্রেম করে বিয়ে হয় তাহলে প্রথম ভালোলাগা কীভাবে শুরু হয়? উত্তরে তিশা বলেন, ‘প্রেম করে বিয়ে। তাও সুপার প্রেম। আর ভালোলাগার শুরুটা হয়েছিল একটু অন্যরকম ভাবে। ওর ব্রেকআপ হয়েছিল। আমি গিয়েছিলাম সান্ত্বনা দিতে। ব্যাস, প্রেম হয়ে গেল।’

তিশা বর্তমানে ব্যস্ত তৌকীর আহমেদ পরিচালিত ‘ফাগুন হাওয়া’ ছবির শুটিং নিয়ে। ১৯৫২ সালের ভাষা আন্দোলনের প্রেক্ষাপট নিয়ে নির্মিত হচ্ছে এই ছবিটি। গত ১০ মার্চ খুলনার পাইগাছা থেকে শুরু হয় ছবির শুটিং। শেষ হবে এ বছরের মাঝামাঝিতে। ‘ফাগুন হাওয়া’য় তিশার নায়ক ছোট পর্দার অভিনেতা সিয়াম আহমেদ। নির্মাতা তৌকীরের সঙ্গে এটি তিশার দ্বিতীয় কাজ। এর আগে তৌকীরের ‘হালদা’ ছবিতে অভিনয় করেছেন তিশা।




২০ টাকার রিচার্জের পরিচয়ে প্রেম ও বিয়ে প্রতারণায় ২৫ লাখ টাকা খুইয়ে সর্বস্বান্ত বকুল!













মোবাইল ফোনে ২০ টাকার রিচার্জের পরিচয়ে খুলনার কলেজছাত্রী সুন্দরী মুন্নীর দীর্ঘ চার বছরের প্রেম ও বিয়ে প্রতারণায় প্রায় ২৫ লাখ টাকা খুইয়ে সর্বস্বান্ত হয়েছেন বগুড়ার শেরপুরের বকুল। এ নিয়ে এলাকায় বেশ চাঞ্চল্যতা ও কৌতূহলের সৃষ্টি হয়েছে।

মো. ফিরোজ হোসেন বকুল শেরপুরের বিশালপুর ইউনিয়নের পাঁচদেওলী গ্রামের মৃত আবির হোসেনের ছেলে। মুন্নী খুলনার ডুমুরিয়া উপজেলার আড়শনগর গ্রামের হামিদুল ওরফে আবদুল হামিদ সরদারের মেয়ে।

প্রতারণার শিকার বকুল জানায়, প্রায় চার বছর আগে তার মোবাইল অ্যাকাউন্টে ২০ টাকার রিচার্জ আসে। পরে মুন্নী ফোন করে টাকাটা ফেরত দিতে বলেন। সেই পরিচয়ের সূত্র ধরে মোবাইল ফোনে প্রেমের সম্পর্ক হয়। ওই সময় মুন্নী ডুমুরিয়া উপজেলার একটি কলেজে ইন্টারমিডিয়েট ক্লাশে লেখাপড়া করতেন।

এরপর থেকেই মুন্নী বকুলকে বিয়ের আশ্বাস দিয়ে তার লেখাপড়া চালানোর অনুরোধ করে এবং লেখাপড়ার খরচ চালানোর পাশাপাশি তার গরিব পরিবারের ভরণ-পোষণের দায়ভারও চাপিয়ে দেয় বকুলের ওপর।

প্রেমিকার সুন্দর বচনভঙ্গী ও আকুতি বিনয়ে আকৃষ্ট হয়ে এবং নিজে অশিক্ষিত হলেও ভবিষ্যৎ বউ শিক্ষিত হবে মর্মে সেই আনন্দে মুন্নীর লেখাপড়ার জন্য বকুল নিজে খুলনায় গিয়ে খুলনা সিটি পলিটেকনিক্যাল কলেজে ভর্তি করে দিয়ে আসে। তার মাসিক খরচ বাবদ প্রতি মাসে ১৫-২০ হাজার করে টাকা পাঠাতে থাকে চার বছর ধরে।

একই সঙ্গে মুন্নীর পরিবারের অন্য সদস্যদের দৈনন্দিন সব খরচের জন্য নগদ অর্থও পাঠানোর পাশাপাশি প্রতি বছর ঈদে নিজ পরিবারের মতো মুন্নীর পরিবারেও কাপড়চোপড় ও কোরবানির পশু কেনার জন্য টাকাও পাঠাত ভুক্তভোগী বকুল মিয়া।

বকুল মিয়া জানায়, প্রায় দুই বছর আগে তার শেরপুরের প্রফেসরপাড়া বাসায় আসে মুন্নী। সেখানে দুই রাত অবস্থান করে তার পরিবারের অন্য সদস্যদের সঙ্গে বিভিন্ন কথা বলেন।

এদিকে ভবিষ্যৎ বউয়ের ঈদ উৎসব ভালোভাবে পালনের জন্য মুন্নীকে সাত ভরি ওজনের সোনার গয়না ও ১২ ভরি ওজনের রুপার অলংকারও কিনে দেয় ববুল। শুধু তাই নয় মুন্নী খাতুনের মা রানজিদা বেগমকে দুই ভরি, তার খালাকে দুই ভরি ওজনের সোনার গয়না বানিয়েও দেয়। তাছাড়া মুন্নীর ভাই মিলন হোসেন একটি স্যামসাং গ্যালাক্সি থ্রিজি মোবাইল সেট কিনে দেয়ার পাশাপাশি মুন্নীর লেখাপড়ার কাজে কম্পিউটার কিনে দেয়ার দাবিও করেছেন বকুল।

মুন্নীর চার বছরমেয়াদি পলিটেকনিকে লেখাপড়ার মাসিক খরচ, পোশাক-পরিচ্ছদ, আসবাবপত্র, সোনা-রুপার গয়না, নগদ অর্থ মিলে প্রায় ২৪-২৫ লাখ টাকা ব্যয় করার কথা জানান বকুল।

এদিকে মুন্নী পলিটেকনিকে লেখাপড়া শেষ করে বকুলকে তার বাড়িতে যেতে বলেন। মুন্নীর বাসায় গিয়ে রাত্রিযাপন শেষে মুন্নীকে চলতি বছরের জানুয়ারি মাসে খুলনা জজ আদালতের নোটারি পাবলিকে এফিডেভিটের মাধ্যমে বিয়ে করে তাকে নিয়ে বগুড়ার শেরপুরের বাসায় আসেন বকুল।

বকুলের বাসায় মুন্নী ২-৩ দিন থাকার পর তার লেখাপড়ার অজুহাত দেখিয়ে খুলনায় চলে যায়। যাওয়ার সময় বকুলের নগদ এক লাখ টাকা ও তাদের বিয়েসংক্রান্ত প্রয়োজনীয় কাগজপত্রাদি নিয়ে যায়। এরপর থেকে মুন্নী খাতুন আর বকুলের কোনো ফোন রিসিভ বা যোগাযোগ করেনি।

এদিকে মোবাইল ফোনে মুন্নীর ভাই মিলনের সঙ্গে বকুল যোগাযোগ করলে তিনিও প্রাণনাশের হুমকি-ধমকি দিয়ে আসছেন।

এসব বিষয়ে প্রশাসনের ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের কাছে লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন। মুন্নীর প্রতারণায় সর্বস্বান্ত হওয়া ভুক্তভোগী ফিরোজ হোসেন বকুল প্রশাসনের সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে দ্রুত হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।




লজ্জাবতী মেয়ে মিথিলা এখন আবেদনময়ী!













যার অভিনয় ও চলন-বলন মুগ্ধ হয়েছে দর্শক। তাহসানের সঙ্গী হিসেবে সুখী দম্পতির উদাহরণও হয়েছিলেন অনেক দিন। নাটকের দর্শকরা তাকে এক নামে চেনে। তিনি রাফিয়াত রশিদ মিথিলা। কিন্তু দর্শকদের হতাশ করে হঠাৎ ভেঙে যায় সোনালী সংসার। এরপর থেকে সাংসারিক জীবনের বদলে একাকীত্বকেই বেছে নিয়েছেন তিনি।

সাবেক স্বামী সঙ্গীতশিল্পী তাহসান খানের সঙ্গে বিচ্ছেদের পরে শোবিজে এখন কান পাতলেই শোনা মিথিলাকে নিয়ে নিন্দুদের অনেক কথা।তবে কোনো কিছু তোয়াক্কো করেননি এই তারকা। শুক্রবার সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে একটি ফটোশুটের কিছু ছবি প্রকাশ করেছেন আলোচিত এই অভিনেত্রী। ফটোশুটে দেখা যাচ্ছে, গোলাপি-সাদা মিশ্রণের স্লিভলেস ফ্রক গায়ে। চোখে রঙিন চশমা। কানে সোনালী রঙের দুল।

ছবিতে দেখা যাচ্ছে, লজ্জাবতী মিথিলা অনেকটাই অবেদনময়ী। সাধারণত এমন পোশাকে মিথিলাকে দেখা যায় না। তার ভিন্ন রকম এই উপস্থিতি সবার নজর কেড়েছে। স্থিরচিত্রগুলো প্রকাশের পরপর সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে। ভিন্ন রকম এক মিথিলার দেখা পেলেন ভক্তরা। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রকাশ করা ছবির ক্যাপশনে মিথিলা লিখেছেন, সত্তরের লুকে পরীক্ষামূলক ফটোশুট। ছবি তুলেছেন রেহনুমা সুরাইয়া।

অভিনয়ে তাকে নিয়মিত পাওয়া যায়। তবে বিশেষ দিবসে টিভি পর্দায় মিথিলার উপস্থিতি বেড়ে যায়। চলতি মাসের প্রথম সপ্তাহ থেকে রেডিওতে একটি অনুষ্ঠান উপস্থাপনা শুরু করেছেন তিনি।