সোনম চুপিচুপি বাগদান সেরে ফেললেন?

অনেকদিন ধরেই বি-টাউনে চলছে গুঞ্জন। অনেকে বলছেন এই বছরের শেষেই বিয়েটা করে ফেলবেন তাঁরা। আবার অনেকে বলছেন এই বছর না হলেও সামনের বছরের শুরুতেই পাকাপাকিভাবে ব্যবসায়ী আনন্দ আহুজার গৃহিনী হতে চলেছেন সোনম কাপুর। কিন্তু গত বুধবার একটি অনুষ্ঠানে তাঁকে দেখে চমকে গেলেন একদল সাংবাদিক। কারনটা শুনলে আপনিও চমকে যেতে পারেন।

আগে তিনি নিজের প্রেম নিয়ে মোটেই মুখ খুলতেন না সকলের সামনে। তবে বর্তমানে মিডিয়ার সামনে নিজের প্রেম নিয়ে কথা না বললেও সোশ্যাল মিডিয়াতে প্রেমের বিষয়ে তিনি বেশ খোলামেলা। আর সেই কারণেই ভ্যালেন্টাইনস ডে-র দিন প্রথমে তিনি নিজেদের পুরনো একটি ছবি দিয়ে তাঁদের প্রেমের কথা জানিয়েছেন।

তারপর আবার আনন্দ তাঁকে যে উপহার পাঠিয়েছেন সেই ছবিও তিনি নিজের ইনস্টাগ্রাম পেজে শেয়ার করে লিখেছিলেন, এরকম একটা উপহার ছাড়া দিনটাই মাটি।

আরও খবর : ইউটিউবে বাজিমাত করলেন এভ্রিল

আর এবারে তো একেবারে হাতেনাতে ধরা পড়লেন সোনম। বুধবার একটি অনুষ্ঠানে কথা বলার সময়ই সাংবাদিকরা লক্ষ্য করেন তাঁর হাতের রয়েছে একটি বিশেষ আংটি। দেখা মাত্রই তাঁরা সরাসরি প্রশ্ন করেন, এই আংটি কি আনন্দ তাঁকে দিয়েছেন? কিন্তু কথাটি সুন্দরভাবে এড়িয়ে যান সোনম। তিনি বলেন, ‘দিলেও আমি মিডিয়ার সামনে সেই কথা কেন বলব?’

তখন তাঁকে অন্য একজন ঘুরিয়ে প্রশ্ন করেন তবে আপনারা কবে বিয়ে করছেন সেটা যদি বলেন? তখন সোনম জানান, ‘আমি আমার ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে মিডিয়ার সামনে আগেও কখনও কথা বলিনি। এবারেও বলব না।’

এসব শুনে অনেকেই মনে করছেন বিরাট-অনুষ্কার মতই সোনম-আনন্দও হয়ত সকলের চোখের আড়ালে কাউকে কিছু না জানিয়ে পরিবারের উপস্থিতিতে বিয়েটা সেরে ফেলবেন বিদেশের মাটিতে। আর তাঁর আগেই বোধহয় চুপিচুপি নিজেদের এনগেজমেন্টবাগদানটাও সেরে ফেলেছেন তাঁরা। আর তার প্রমাণ স্বরূপ এদিন তাঁর হাতে ওই বিশেষ আংটি দেখা গিয়েছে।

যদিও বর্তমানে সোনম তাঁদের নিজেদের প্রোডাকশন হাউসের সিনেমা ‘বীর দি ওয়েডিং’ নিয়ে ভীষণ ব্যস্ত। কারণ চলতি বছরের পয়লা জুন এই ছবিটি মুক্তি পাবে বলেই তিনি জানিয়েছেন।

এসএইচ-০৪/২৪/০২ (বিনোদন ডেস্ক, তথ্যসূত্র : সংবাদ প্রতিদিন)

ইউটিউবে বাজিমাত করলেন এভ্রিল

মিস ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশের প্রতিযোগী হিসেবে আলোচনায় আসেন জান্নাতুল নাঈম এভ্রিল। সেরার মুকুট মাথায় নিয়েও সেখান থেকে সরে আসতে হয়। তবে শোবিজে তিনি ছড়িয়ে যাচ্ছেন মুগ্ধতা।

নিয়মিতই অভিনয় করছেন টিভি নাটক-টেলিছবিতে। এবার ভালোবাসা দিবস উপলক্ষে অভিনয় করেছিলেন ‘তুমি ছাড়া ইমপসিবল’ শিরোনামের একটি নাটকে। ভালোবাসা দিবসের নাটকে এই প্রথম অভিনয় করেছেন এভ্রিল। এই নাটকেই করেছেন বাজিমাত।

ইউটিউবে নাটকটির ভিউয়ার্স ক্রমেই বেড়ে চলেছে। ভালোবাসা দিবস ১৪ ফেব্রুয়ারি ইউটিউবে আপলোড করা নাটকটি এক সপ্তাহে ভিউয়ার্স সংখ্যা ছাড়িয়েছে ১২ লাখ।

আরও খবর : নেসের বিরুদ্ধে একাধিক অভিযোগ প্রীতির

নাটকটিতে এভ্রিলের বিপরীতে অভিনয় করেছেন ‘গহীন বালুচর’ সিনেমার অভিনেতা আবু হুরায়রা তানভীর। এছাড়াও এখানে অভিনয় করেছেন সাবেরী আলম, ‘পালকী’খ্যাত অভিনেতা ইমতু রাতিশ।

নাটকটি নিয়ে এভ্রিল বলেন, ‘এই নাটকটিতে কাজ করে দারুণ লেগেছে। চমৎকার গল্প, গোছানো নির্মাণ। তাছাড়া এই নাটক দিয়ে প্রথমবারের মতো ভ্যালেন্টাইনের জন্য অভিনয় করলাম। সবাই নাটকটি দেখছে। খুব ভালো রেসপন্স পাচ্ছি। ’

নাটকটি নিয়ে নির্মাতা লাজুক বলেন, ‘একটি নিখুঁত প্রেমের গল্প নিয়ে নাটকটি নির্মাণ করেছি। বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াকালীন প্রেম বরাবরই দারুণ কিছু। এখানেও তেমনটা দেখানো হয়েছে। এভ্রিল খুব হেল্পফুল ছিল। অভিনয়টাকে সে মন দিয়ে করেছে। তানভীর ও অন্যরাও চমৎকার কাজ করেছেন।’

এসএইচ-২১/২৩/০২ (বিনোদন ডেস্ক)

জেসিয়া পছন্দ করেন শাকিবকে

বারকয়েক সময় নির্ধারিত হওয়ার পরও পরীক্ষার কারণে সেটা পরিবর্তন করতে হলো। অবশেষে মুঠোফোনই ভরসা। শুরুতেই জেসিয়া দুঃখ প্রকাশ করে বললেন, ‘আমার এ-লেভেল চলছে। হুট করে পরীক্ষা শুরু হয়ে গেছে। কাজও করতে পারছি না, আবার বাইরে কোথাও যেতেও পারছি না।’

জেসিয়া ইসলাম মিস ওয়ার্ল্ডের চূড়ান্ত আসর থেকে ফিরেছেন বেশ কিছুদিন আগে। সেরা ৪০-এ জায়গাও করে নিয়েছিলেন। কিন্তু বিধি বাম। ফাইনাল অবধি গিয়ে ফিরে এসেছেন। তবে নিজের দেশকে এমন একটা আসরে উপস্থাপন করে দারুণ খুশি। বললেন, ‘এমন সুযোগ পাওয়া সত্যি ভাগ্যের ব্যাপার। আমি দারুণ খুশি। তবে সেরা হতে পারলে ভালো লাগত।

’ মিস ওয়ার্ল্ড হতে পারলে সবকিছু বদলে যেত হয়তো। বদলের পরিকল্পনাও চূড়ান্ত করেছিলেন তিনি। কিন্তু সেটা যেহেতু হয়নি, তাই ও পথ আর মাড়াতে চান না। এখন বর্তমান নিয়েই বেশি ব্যস্ত। সেই বর্তমানে সবার আগে গুরুত্ব পেয়েছে পড়াশোনা। আপাতত এ-লেভেল শেষ করে বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হতে চান। তারপরই লক্ষ্য চূড়ান্ত করবেন।

আরও খবর : হৃদয় খান নতুন স্ত্রীকে নিয়ে প্রকাশ্যে এলেন!

ঝুলিতে একটা টেলিছবি, ধারাবাহিকে অভিনয় আর প্রচারের অপেক্ষায় থাকা একটি বিজ্ঞাপন আছে। জেসিয়া বললেন, ‘আমি শুরু থেকেই খুব বেছে বেছে কাজ করছি। গল্প ও চিত্রনাট্য পছন্দ না হলে কাজ করি না। আমার সঙ্গে সময়টা মিলে যাওয়া খুব জরুরি। দেখা যাক কত দূর কী করতে পারি!’

এরই মধ্যে নতুন নতুন কাজের ব্যাপারে অনেকেই যোগাযোগ করছেন। কিন্তু এখনই কিছু বলতে চান না তিনি। সবকিছু ঠিক হলে তবেই সেসব নিয়ে কথা চলবে।

তাহলে ক্যারিয়ার নিয়ে লক্ষ্য কী? জেসিয়া ওপাশে খানিকক্ষণ চুপ থাকেন। তারপর বলেন, ‘আমি এখনো কোনো লক্ষ্য স্থির করিনি। দেখি কত দূর যেতে পারি। ও রকম কোনো কিছুই ঠিক নেই। তবে ইচ্ছা আছে।’
লক্ষ্য স্থির করতে না পারলেও জেসিয়ার ইচ্ছা বড় পর্দায় কাজ করার। বিপরীতে পছন্দের অভিনেতা শাকিব খান বা আরিফিন শুভ হলে তো কথাই নেই। বড় পর্দার শুরুটা এমন বড় অভিনেতার সঙ্গে হলে একটা দারুণ ব্যাপার হবে বলে মনে করেন জেসিয়া।

মিস ওয়ার্ল্ডের চূড়ান্ত আসরে যাওয়ার আগে কিছু সামাজিক কাজের স্বপ্ন দেখেছিলেন তিনি। এখনো কি সেরকম কোনো কাজ করার ইচ্ছা আছে? জানালেন, আছে, তবে এখনো কিছু চূড়ান্ত করেননি তিনি। পড়াশোনা শেষ করে তবেই মাঠে নামবেন।

জানতে চাই, এভ্রিল তো আপনার খুব কাছের বন্ধু ছিল। শুনে শুরুতেই আপত্তি তোলেন। বলেন, ‘প্রতিযোগিতাতেই আমার সঙ্গে এভ্রিলের পরিচয়। গ্রুমিংয়ের সময় আমার পাশের রুমে থাকত। কথা হতো। ব্যস, ওইটুকুই। তবে বন্ধু নয়।’

প্রশ্ন সংশোধন করে বলি, বন্ধু হোক বা না হোক, এভ্রিল তো নানা ধরনের সামাজিক কাজের পরিকল্পনা করছে। আপনাকে যদি তাঁর সঙ্গে চায়। যাবেন?

জেসিয়া বলেন, ‘ও তো বাল্যবিবাহ নিয়ে কাজ করতে চায়। আমার তো এই চাওয়াটা না-ও থাকতে পারে। আমি হয়তো অন্য কিছু নিয়ে কাজ করব। আর আমার কাজের সঙ্গে যদি মিলে যায়, তবে কেন যাব না।’

এভ্রিল প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘আমি আসলে কারও ব্যাপারে কোনো মন্তব্য করতে চাই না। ও ওর মতো এগিয়ে যাক। এটাই চাওয়া।’

কথা শেষ করার আগে জেসিয়া এত দূর আসার পেছনে দর্শক, ভক্তদের ধন্যবাদ জানান। বলেন, ‘আমি সত্যিই কৃতজ্ঞ। তাঁদের জন্যই আমি জেসিয়া হতে পেরেছি। সবাইকে অনেক বেশি বেশি ধন্যবাদ দিতে চাই। তাঁদের সব সময় আমার সব কাজে তাঁদের ভালোবাসা চাই।’

এসএইচ-১৩/২৩/০২ (বিনোদন ডেস্ক, তথ্যসূত্র : প্রথম আলো)

হৃদয় খান নতুন স্ত্রীকে নিয়ে প্রকাশ্যে এলেন!

এতদিন লুকিয়ে রাখলেও এবার নতুন স্ত্রীকে নিয়ে প্রকাশ্যে এসেছেন জনপ্রিয় কণ্ঠশিল্পী হৃদয় খান। গত বছরের ১০ সেপ্টেম্বর আনুষ্ঠানিকভাবে বিয়ে করছেন তিনি। বিষয়টি হৃদয় খান কোনো গণমাধ্যমকে না জানালেও তার একাধিক ঘনিষ্ঠজন বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তবে সে সময় হৃদয় খান তার নতুন বিয়ের ব্যাপারটি গোপন রাখলেও গোপন রাখতে পারেনি বিয়ের ছবি।

প্রকাশ হয়ে গিয়েছিল নতুন কনে মালয়েশিয়ায় প্রবাসী হুমায়রার সঙ্গে হৃদয়ের বিয়ের ছবি। অবশেষে এই কণ্ঠশিল্পী নিজেই তার নতুন স্ত্রীকে নিয়ে প্রকাশ্যে এসেছেন।

আরও খবর : অর্থের জন্যই কী বিয়ে…

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় ফাকার সোনারগাঁও হোটেলে আয়োজন করা হয় এই দুজনের বিবাহোত্তর সংবর্ধনার। এসময় তার ঘনিষ্ঠজনরাও উপস্থিত ছিল।

উল্লেখ্য যে, ২০১০ সালে প্রথমবাররে মতো পূর্ণিমা আকতার নামে একজনকে বিয়ে করেছিলেন হৃদয় খান। কিন্তু সেই সম্পর্ক টিকেছিল মাত্র ছয় মাস।

এরপর ২০১৪ সালে ভালোবেসে বিয়ে করেন মডেল সুজানাকে। মাত্র আট মাসের মাথায় সেই বিয়ের সমাপ্তি ঘটে। এটি তার তৃতীয় বিয়ে।

এসএইচ-০৭/২৩/০২ (বিনোদন ডেস্ক)

স্টেডিয়ামে হেনস্থার তিন বছর পর মামলা করলেন প্রীতি জিনতা!

‘টাইমস আপ’ আন্দোলনের ঢেউ বলিউডেও লাগল বলে। নইলে তিন বছরেরও বেশি সময় আগের ঘটনা। আর বলিউডের তারকা অভিনেত্রী মামলাটি করলেন গত মঙ্গলবার!

২০১৪ সালের ৩০ মে আইপিএলের ম্যাচ চলাকালে সাবেক প্রেমিক নেস ওয়াদিয়া তাকে স্টেডিয়ামেই হেনস্থা করেছিলেন। ৫ বছর টিকেছিল ব্যবসায়ী নেস ওয়াদিয়া ও প্রীতির সম্পর্ক। সেই সম্পর্ক এখন আর নেই। ২০১৬ সালে প্রীতি জিনতা বিয়ে করেছেন বিদেশী গুড এনাফকে। এবার মামলা ঠুকে দিলেন সাবেক প্রেমিকের বিরুদ্ধে।

দীর্ঘ ওই চার্জশীট জমা দেয়ার সময় আদালতে উপস্থিত ছিলেন নেস ওয়াদিয়া। তিনি ২০ হাজার রুপির বিনিময়ে জামিন নিয়েছেন। কিন্তু বিষয়টি নিয়ে পানি যে আরও গড়াবে তা আর বলতে!

আরও খবর : পর্নস্টারকে নিয়ে শুটিং করায় শাস্তি হবে রামগোপালের!

ভারতের ওয়াংখেড়ে স্টেডিয়ামে চেন্নাই সুপার কিংস ও কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবের ম্যাচ চলাকালে প্রীতিকে প্যাভিলিয়নে বসে থাকতে দেখে টিমের কর্মীদের সঙ্গে অসভ্য আচরণ করেন। তখন প্রীতি তিনি নিজের সিট পরিবর্তন করেন অন্য জায়গায় তার এক বন্ধুর সঙ্গে গিয়ে বসেন।

এরপর নেস ওয়াদিয়া প্রীতিকে মাঠের মধ্যে টিম সদস্যদের সামনেই আরেকদফা হেনস্থা করেন। তিনি দূরে সরে যেতে চাইলে নেস ওয়াদিয়া তার হাত ধরে টানাটানি করেন। নেস ওয়াদিয়া জোরপ্রয়োগ করায় তার হাতে দাস বসে যায়। প্রীতি প্রমাণস্বরূপ চারটি ছবিও জমা দিয়েছেন।

প্রীতি জিনতা অভিযোগ করেছেন, ‘নেস ওয়াদিয়া তাকে হেনস্থা করেছে এবং অশালীন আচরণ করেছে।’

আইপিএলের দল কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবের যৌথ মালিকানা আছে প্রীতি-নেস ওয়াদিয়ার। ভারতের মুম্বাই মিরর বলছে, প্রীতির সঙ্গে অশালীন আচরণ ও তাকে হেনস্থা করায় নেস ওয়াদিয়ার বিরুদ্ধে ভারতীয় দণ্ডবিধি ৩৫৪ ও ৫০৯ ধারায় অভিযোগ গঠন করা হয়েছে।

এসএইচ-৩০/২২/০২ (বিনোদন ডেস্ক)

শাকিব-অপুর বিবাহিত জীবন বাড়লো আরো একমাস

অপু বিশ্বাসকে শাকিব খানের তালাকের নোটিশ পাঠানোর নব্বই দিন পূর্ণ হয়েছে বৃহস্পতিবার। গুঞ্জন ‍ওঠেছিল এদিনই দুই তারকার তালাক কার্যকর হবে।

জানা গেছে, তিন দফা সালিশ বৈঠকের শেষ কিস্তি এখনো বাকি। তখন যদি সমঝোতা না হয়, তবেই কার্যকর হবে তালাক।

এর আগে ১২ জানুয়ারি ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশন (ডিএনসিসি) কার্যালয়ে প্রথম বৈঠকে অপু হাজির হলেও ছিলেন না শাকিব। দ্বিতীয় কিস্তির বৈঠক ছিল ১২ ফেব্রুয়ারি। সেদিন কেউই ডিএনসিসি কার্যালয়ে যাননি।

ডিএনসিসি অঞ্চল-৩-এর নির্বাহী কর্মকর্তা হেমায়েত হোসেন জানান, শাকিব-অপুর তৃতীয় শুনানি হবে ১২ মার্চ। সেদিন সমঝোতা না হলে তালাক চূড়ান্ত হবে।

অবশ্য সমঝোতার কোনো লক্ষণ এখনো দেখা যাচ্ছে না। শাকিব বলছেন, এ সম্পর্ক নিয়ে আর ভাবছেন না। অন্যদিকে, শাকিবের সিদ্ধান্ত মেনে নিয়েছেন অপু্।

২২ নভেম্বর আইনজীবী শেখ সিরাজুল ইসলামের মাধ্যমে অপুর কাছে তালাকের নোটিশ পাঠান শাকিব খান।

আরও খবর : শাকিব-অপুর বিচ্ছেদ?

২০১৬ সালের মাঝামাঝিতে হঠাৎ আড়ালে চলে যান অপু বিশ্বাস। ২০১৭ সালের ১০ এপ্রিল সন্তান কোলে হাজির হলেন টিভি চ্যানেলে। সরাসরি সম্প্রচার হওয়া ওই অনুষ্ঠানে দাবি করেন, শাকিব খানের সঙ্গে ২০০৮ সালে বিয়ে হয় তার। ২০১৬ সালে জন্ম নিয়েছে ছেলে আব্রাম খান জয়।

আরো জানান, বিয়ে ও সন্তান হওয়ার খবর শাকিবের ক্যারিয়ারের কারণেই চেপে রেখেছিলেন। কিন্তু নায়কের অবহেলার কারণে প্রকাশ্যে সন্তান নিয়ে হাজির হতে বাধ্য হয়েছেন।

এ ঘটনায় দুই তারকার মধ্যকার টানাপোড়েন প্রকাশ্য হয়। এরপর মাত্র একবারই প্রকাশ্যে একসঙ্গে এসেছেন তারা।

সর্বশেষ অক্টোবরে নিকেতনে অপুর বাসায় ছেলেকে দেখতে গিয়ে শাকিব অভিযোগ তোলেন, জয়কে ঘরে তালাবন্ধ করে গৃহকর্মীর কাছে রেখে ভারতে গেছেন অপু। অভিযোগ নাকচ করে নায়িকা বলেন, বড়বোনের কাছে ছেলেকে রেখে যান তিনি। জরুরি চিকিৎসার কারণেই দুদিনের জন্য ভারতে যেতে হয়েছে তাকে।

এর কিছুদিন পরই অপুর বাসায় তালাকের নোটিশ পাঠান শাকিব।

২০০৬ সালে পরিচালক এফ আই মানিক পরিচালিত ‘কোটি টাকার কাবিন’ ছবিতে প্রথমবার পরস্পরের বিপরীতে অভিনয় করেন শাকিব খান ও অপু বিশ্বাস। ২০১৬ সাল পর্যন্ত এই জুটি ৭০টির মতো জনপ্রিয় ছবিতে অভিনয় করেন।

এসএইচ-২২/২২/০২ (বিনোদন ডেস্ক)

শাকিব-অপুর বিচ্ছেদ

২২ নভেম্বর থেকে ২২ ফেব্রুয়ারি। অপু বিশ্বাসকে তার স্বামী চিত্রনায়ক শাকিব খানের তালাকনামা পাঠানোর তিন মাস পূর্ণ হল আজ। দু’জনের আর এর মধ্যে সমঝোতা হয়নি। তাই আইন অনুযায়ী বৃহস্পতিবার ঢালিউডের আলোচিত দম্পতি শাকিব-অপুর বিবাহ বিচ্ছেদ কার্যকর হয়ে গেছে।

প্রথমে তীব্র বিরোধিতা করলেও শাকিবের তালাক মেনেও নিয়েছেন অপু। ২০০৮ সালে বিয়ে করেছিলেন ঢালিউডের এ সফল জুটি। আব্রাম খান জয় নামের তাদের একটি পুত্র সন্তান আছে। দীর্ঘ সময় একসঙ্গে সংসার করলেও বিয়ের বিষয়টি শাকিব-অপু গোপন রেখেছিলেন।

আরও খবর : জাকারবার্গের রেকর্ড ভাঙলেন প্রিয়া

গত বছর বিয়ের খবর ফাঁস করে দেন অপু। যা শোবিজ জগতে আলোড়ন তুলেছিল। এরপর তাদের দীর্ঘ দাম্পত্যের নানা খুঁটিনাটি-মতবিরোধ সামনে এসেছে।

বিয়ের খবর প্রকাশ করার পরপরই শাকিব-অপুর সম্পর্কের অবণতি হয়। যার চূড়ান্ত রূপ পায় নভেম্বরে। শাকিব তার আইনজীবীর মাধ্যমে তালাকের নোটিশ পাঠান অপুকে।

শাকিব-অপুর মধ্যে সমঝোতার চেষ্টা করেছিল ডিএনসিসি। প্রথম বৈঠকে অপু বিশ্বাস হাজির হলেও শাকিব কিংবা তার কোনো প্রতিনিধি ছিলেন না। এরপর ‘কোন লাভ হবে না’ জেনে দ্বিতীয় বৈঠকে অপুও তাতে আর যাওয়ার প্রয়োজন মনে করেননি। নানা চড়াই-উৎরাই পেরিয়ে প্রায় ১০ বছরের মাথায় অবসান ঘটল শাকিব-অপু অধ্যায়ের।

এসএইচ-১৬/২২/০২ (বিনোদন ডেস্ক)